জানুয়ারি ২০, ২০১৭

সহিংসতার মানে হচ্ছে মহান আল্লাহর বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করা : মুফতী ফয়জুল্লাহ

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

মুফতী ফয়জুল্লাহইসলামী ঐক্যজোটের মহাসচিব মুফতী ফয়জুল্লাহ বলেছেন, ঈমানদার মানুষ ন্যায় প্রতিষ্ঠা ও অন্যায় নির্মূল করেই শ্রেষ্ঠ উম্মত হিসেবে পরিচিতি লাভ করে। তারা পরিপূর্ণ ইসলাম কায়েমের মাধ্যমে দেশ ও সমগ্র মানব জাতির কল্যানের মহত্তম লক্ষ্য ও মিশনে নিজের জান, মাল ও সমুদয় সামর্থ্য বিলিয়ে দেয়।

মুফতী ফয়জুল্লাহ বলেন, ইসলামে সন্ত্রাস ও স্বেচ্ছাচারীতার কোন স্থান নেই। নিরীহ মানুষ খুন করা, সন্ত্রাস, সহিংসতা ও স্বেচ্ছাচারীতার মানে হচ্ছে মহান আল্লাহর বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করা, মহান আল্লাহর শত্রু রূপে নিজেকে প্রমাণ করা। যারা সন্ত্রাস করে, মানুষ খুন করে তাদের সাথে মহানবীর আনীত ইসলামের কোন সম্পর্ক নেই। যুগে যুগে এরাই মুমিনদের মুখে কালিমালেপন করে সত্য দীনের পথে চলা কঠিন করে তুলে।

আজ মঙ্গলবার বাদ আসর ইসলামী ঐক্যজোট কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে মাওলানা আহমদ মাসরুর ও মুফতী সাঈদুর রহমান এর নেতৃত্বে আগত নেতৃবৃন্দের উদ্দেশ্যে মুফতী ফয়জুল্লাহ একথা বলেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, যুগ্ম মহাসচিব মুফতী তৈয়্যেব হোসাইন, মাওলানা আবুল কাশেম,মাওলানা আহলুল্লাহ ওয়াসেল প্রমুখ।

ইসলামী ঐক্যজোট মহাসচিব আরো বলেন, একটি ইসলাম বিনাশী চক্র ইসলামী জনতার গলায় শিকল পড়ানোর লক্ষ্যে আইনগত উপায়ে, সুপরিকল্পিত ভাবে দেশের শিক্ষাব্যবস্থা ধ্বংস করে দেয়ার ষড়যন্ত্র করছে। ছাত্র- ছত্রীদেরকে ইসলামের মৌল শিক্ষা থেকে দূরে সরানোর লক্ষ্যে নতুন আঙ্গিকে বই দেয়া হচ্ছে , পরিবর্তন আনা হচ্ছে সিলেবাসে,করা হচ্ছে ইসলাম বিরোধী শিক্ষানিতীমালা ও শিক্ষাআইন। ইসলামবৈরী এমন পরিচর্যার কারণে স্কুল, কলেজ,ইউনিভার্সিটির ছাত্র-ছাত্রীগণও ভূল পথে, ধ্বংসের পথে, আত্মহত্যার শামিল অপকর্ম করে যাচ্ছে। তখন তারা নিরস্ত্র জনগণের উপর ঝাঁপিয়ে পড়ছে, সন্ত্রাস ও সহিংসতা করছে। ত্রাস সৃষ্টির এরূপ প্রতিটি উদ্যোগ ও সন্ত্রাস নির্মূলের জন্য সঠিক ও সত্য ইসলাম সবাইকে জানাতে শিক্ষার সর্বস্তরে ইসলামী শিক্ষা বাধ্যতামূলক করা অনিবার্য।