ভারতে পুজার চাঁদা না দেয়ায় মুসলিম শ্রমিকদের কান ধরে উঠবস

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

2016-08-22_183055গনেশ পুজোর চাঁদা কম দেয়ায় ভারতের মহারাষ্ট্রের পুনের একটি বেকারিতে কর্মরত ১১ মুসলিম শ্রমিককে প্রকাশ্য কান ধরে উঠবস করিয়ে শাস্তি দেয়া হয়েছে। উত্তর প্রদেশের বাসিন্দা ওই শ্রমিকরা ওই বেকারির কাজ ছেড়ে নিজ গ্রামে চলে যেতে বাধ্য হয়েছেন।

মুসলিম ওই শ্রমিকদের অপরাধ, তারা ১০১ টাকার পরিবর্তে ৫১ টাকা চাঁদা দিতে চেয়েছিল।

আজ (সোমবার) গণমাধ্যমে প্রকাশ, গত ১৫ আগস্ট গণেশ মণ্ডলের কিছু সদস্য পিম্পরি-চিনচওয়াদে অবস্থিত ক্রাউন বেকারিতে কর্মরত শ্রমিকদের কাছে গণেশ উৎসবের জন্য ১০১ টাকা চাঁদা দাবি করে। যদিও শ্রমিকরা ৫১ টাকা দিতে রাজি হয়। আর এতেই ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে চাঁদা আদায়কারীরা।

দাবি অনুযায়ী চাঁদা না দেয়াতে গণেশ মণ্ডলের সদস্যরা ওই শ্রমিকদের হুমকি দেয় এবং প্রকাশ্য বাজারে তাদের কান ধরে উঠবস করানো হয়। গণেশ মণ্ডলের সদস্যরা ওই ঘটনা মোবাইলে রেকর্ড করে এবং পরে তা বন্ধুদের মধ্যে শেয়ার করে। এরপরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ওই ভিডিও ভাইরাল হয়ে যায়। শনিবার এ নিয়ে পুলিশে অভিযোগ দায়ের হয়েছে।

সহকারি পুলিশ পরিদর্শক মহেশ স্বামী গণমাধ্যমকে বলেন, ‘আমরা গণেশ মণ্ডলের তিন সদস্যের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছি, যদিও অপরাধ জামিনযোগ্য হওয়ায় তাদের গ্রেফতার করা হয়নি। অভিযুক্ত ৩ জনকে সোমবার আদালতে উপস্থিত হওয়ার জন্য নোটিশ পাঠানো হয়েছে।’

মহেশ স্বামী আরো বলেন, এ নিয়ে ৩/৪ জন অভিযোগকারী তাদের কাছে আসার পরেই পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। অভিযোগকারীরা জানায় তাদের ‘লাঞ্ছিত’ করা হয়েছে এবং ‘হুমকি’ দেয়া হয়েছে।

বেকারিটিতে রোববার গণমাধ্যমের পক্ষ থেকে ওই বিষয়ে খোঁজখবর নেয়া হলে সংশ্লিষ্ট বেকারিতে কর্মরত শ্রমিকরা জানায়, তারা নতুন কাজে যোগ দিয়েছেন। ওই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত শ্রমিকরা কাজ ছেড়ে দিয়ে চলে গেছে। সেখানকার এক কর্মী জানায়, আমরা জানি না তারা কোথায় গেছে, হতে পারে তারা পুনে ছেড়ে চলে গেছে।

পুলিশের দাবি, বেকারি মালিক তাদের জানিয়েছে ৩/৪ জন যুবক উত্তর প্রদেশে নিজ গ্রামে ফিরে গেছে, অন্যরা ভয় পেয়ে কাজে আসছে না।

সূত্র : পার্স টুডে