সুবর্ণচরে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় আহত ১০

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি


রোববার সকালে নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলার চরবাটা ইউনিয়নের পশ্চিম চরবাটা গ্রামে জমি নিয়ে বিরোধের জেরে ভয়বহ সংঘর্ষে জমির মালিক জয়নাল মিয়াসহ অন্তত ১০জন আহত হয়েছে। আহতদের নোয়াখালীর সুবর্ণচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

সোমবার সকালে সরেজমিনে গিয়ে এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষী সুত্রে জানা যায়, বিগত দুই বছর যাবৎ প্রতিপক্ষ মোঃ কেফায়েত উল্যাহ ও সহদর হেদায়েত উল্যার সাথে জমি নিয়ে বিরোধ চলছে, একাধিকবার এনিয়ে দেনদবার হলেও বিষয়টি সুরাহা হয়নি। বরং তারা জমির মালিককে নানা ভাবে হুমকি দিয়ে আসছে।

ঘটনার দিন রোববার অভিযুক্ত কেফায়েত উল্যাহ ও হেদায়েত উল্যাহসহ স্থানীয় এবং বহিরাগত প্রায় অর্ধশতাধিক ভাডাটিয়া লোকজন নিয়ে মোঃ জয়নাল আবেদীন মিয়ার চাষকৃত জমিতে আগাম জাতের আমন কাটা শুরু করে। এমতাবস্থায় জমির মালিক জয়নাল মিয়া বাধা দিতে চেষ্ঠা করিলে দুই সহোদর ভাইয়ের ভাড়াটিয়া লোকজন জয়নাল মিয়ার উপর হামলা চালায়, এবং এতে জয়নাল মিয়ার বসতঘর ভাংচুরসহ সন্ত্রাসী কর্মজজ্ঞে বাধা দিতে আসা অন্তত ১০জন কে এলাপাতাড়ি কুপিয়ে আহত করেন।

এমতাবস্থায় জয়নাল মিয়া আইনের আশ্রয় নিতে থানায় যেতে চাইলে তাদেরকে থানায় যেতে বাধা দেয়।পরে জয়নাল মিয়া তার ভাগিনা মোঃ দিাদারুল আলমকে দিয়ে স্থানীয় চরজব্বার থানায় অভিযোগ করান।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে মামলার উপ-পরিদর্শক রফিকুল ইসলাম প্রতিবেদককে জানান, ঘটনায় থানায় অভিযোগ করার সাথে সাথে আমরা দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে বিষয়টি সরে জমিনে পর্যবেক্ষন করি। এবং পরবর্তিতে আইনানুগ ব্যাবস্থা নেয়ার আস্বাস ও দেন এ কর্মকর্তা।

অন্যদিকে সুবর্ণচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক আহতদের চিকিৎসা দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, আহত মোঃ মাইন উদ্দিন, অলি উদ্দিন(মিলন), বেলাল উদ্দিন ও ছালা উদ্দিনের অবস্থা গুরুতর ছিলো। এখন মোটামুটি সঙ্কামুক্ত বলেও জানান তিনি।

তবে অভিযুক্ত মোঃ কেফায়েত ঊল্যাহ ও সহোদর ভাই হেদায়েত উল্যাহর সাথে সরাসরি দেখা মেলেনি এবং মুঠোফোনে বিষয়টি জানতে চাওয়ার চেষ্টা করেও তাদের মুঠোফোনে সংযোগ দেয়া সম্ভব হয়নি।