কীভাবে ফাঁসি দিতে হয়- তা দেখাতে গিয়ে প্রাণ গেল স্কুলছাত্রের

ফাঁসিকীভাবে ফাঁসি দিতে হয়- তা দেখাতে গিয়ে ফাঁসে আটকে পড়ে জীবন হারালো রাজধানীর এক স্কুলছাত্র।

নিহত রাকিন ফায়েজ (১১) রাজধানীর শাহজাহানপুরের ফজলু রহমান স্কুলের পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র ছিল।

রবিবার রাতে আশঙ্কাজনক অবস্থায় রাকিনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

হাসপাতাল সূত্র জানান, রাত ৯ টার পর তাকে অচেতন অবস্থায় হাসপাতালে আনা হয়। এখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রাত পৌনে ১০ টার দিকে চিকিৎসকরা মৃত ঘোষণা করেন। সাড়ে ১২ টার দিকে লাশের ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

ফায়েজের মা হাসিনা বেগম বলেন, মালিবাগ বাজারের কাছে একটি ভবনের দোতলায় তারা ভাড়া থাকেন। রাত পৌনে ৮ টার দিকে ফায়েজসহ তিন ভাই ঘরের মধ্যে খেলছিল। ফায়েজ কীভাবে ফাঁসি দিতে হয়- তা অন্য ভাইদের দেখাতে যায়। এরপর জানালার গ্রিলের সঙ্গে ঝুলে অভিনয় দেখাতে গিয়ে গলায় ফাঁস লেগে যায়। পরে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় ইসলামী ব্যাংক হাসপাতাল এবং ঢামেক হাসপাতালে আনা হয়। তিন ভাইর মধ্যে ফায়েজ সবার ছোট।

এ ব্যাপারে শাহজাহানপুর থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

উল্লেখ্য, সাম্প্রতিক সময়ে ফাসি বাংলাদেশে বহুল আলোচিত ঘটনায় পরিণত হয়েছে।

গত বছর ২০১৫-তে ১৯৫ জনকে ফাঁসির দণ্ড দেয়া হয় বাংলাদেশে। শুধু গত নভেম্বরে এক মাসে ৬৬ জনকে মৃত্যুদণ্ড দেয়া হয়েছিল।

শুধু ৩০ নভেম্বরেই ২৯ জনের ফাসির আদেশ দেয়া হয়েছিল। গাজীপুরে শুধু একটি মামলায় ১১ জনকে ফাঁসির আদেশ দেয়া হয়।