তড়িঘড়ি করে তফসীল ঘোষণা : প্রতিক্রিয়ায় যা বলছে ইসলামী দলগুলো

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | জামিল আহমদ


অনেকটা তড়িঘড়ি করে ঘোষণা করা হলো আগামী একাদশ সংসদ নির্বাচনের তফসীল। আজ প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা জাতীর উদ্দ্যেশে দেয়া ভাষণে এ তফসীল ঘোষণা করেন। ঘোষণা অনুযায়ীএকাদশ সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামী ২৩ ডিসেম্বর। এছাড়াও মনোনয়নপত্র জমা দেয়ার শেষ তারিখ ১৯ নভেম্বর। যাচাই-বাছাই ২২ নভেম্বর ও মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ সময় ২৯ নভেম্বর ঘোষণা  করা হয়েছে।

সিইসি কর্তৃক ভোটের তারিখ ঘোষণার বিষয় মন্তব্য জানতে চাইলে ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শরীক দল খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের বলেন, এতো তাড়াতাড়ি নির্বাচনের তফসিল ঘোষনা করাটা খুবই দূঃখজনক। তাদের আরো একটু অপেক্ষা করা উচিত ছিলো। কেননা সংলাপের মাধ্যমে যে আলোচনার সূত্রপাত হয়েছিলো আজ তফসীল ঘোষণার মধ্য দিয়ে তা প্রায় বন্ধ করে দেয়া হলো।

তড়িঘড়ি করে তফসীল ঘোষণার পিছনে সরকারের ইঙ্গিত আছে বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, সরকারের ইঙ্গিত  না  থাকলে এতো তাড়াতাড়ি তফসীল ঘোষণা করার কোন কারণ আছে বলে মনে হয় না। আর সংবিধান অনুযায়ীই ২৮ জানুয়ারী পর্যন্ত সময় থাকার পরও কেন ২৩ ডিসেম্বর নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে বলা হলো। বিরোধী দলগুলোর বারবার তফসীল পেছানোর আহ্বান করার পর তারা ঘোষণা করল। এতে প্রতীয়মান হচ্ছে এ ঘোষণা একটি অবাধ সুষ্ঠ, নিরপেক্ষ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের অন্তরায়।

জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের যুগ্ম-মহাসচিব মাওলানা বাহাউদ্দীন জাকারিয়ার মতে দেশবাসী আশা করছিল সংলাপের মাধ্যমে একটা সমাধান আসবে। কিন্তু তড়িঘড়ি করে তফসীল ঘোষণা করায় সংলাপের মাধ্যমে সংকট সমাধানের যে আশা করা হচ্ছিল, সেটি বাধার মুখে পড়ল। নির্বাচন কমিশনের উচিৎ ছিল আরো একটু সময় নিয়ে তফসীল ঘোষণা করা।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের ঢাকা মহানগরীর সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ এখনো আশা করছেন সরকার তাদের দাবি মেনে নিয়ে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন দিবে।

এদিকে তফসীল ঘোষণাকে স্বাগত জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন ইসলামী ঐক্যজোট। দলটির চেয়ারম্যান মাওলানা আবদুল লতিফ নেজামী আজ এক বিবৃতিতে  বলেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে। আমরা তফসীল ঘোষনাকে স্বাগত জানাই। এ নির্বাচনে ইসলামী ঐক্যজোট অংশ নেবে। আশা করি,  কোন দল-মতের তোয়াক্কা না করে সকল প্রার্থীর জন্য সমান সুযোগ রেখে নির্বাচন কমিশন একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন আয়োজনে তাদের সাংবিধানিক কর্তব্য পালন করবে। তিনি ইসলামী ঐক্যজোটের মনোনয়ন প্রত্যাশীদের নির্বাচন কমিশনের আচরণবিধি মেনে নির্বাচনি তৎপরতা, গণসংযোগ ও সভা-সমাবেশ করারও নির্দেশ দেন।



Notice: Undefined index: email in /home/insaf24cp/public_html/wp-content/plugins/simple-social-share/simple-social-share.php on line 74