মার্চ ২৩, ২০১৭

নানুপুরে মাদরাসায় সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় আল্লামা শফীর নিন্দা

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

শাইখুল ইসলাম আল্লামা শাহ আহমদ শফীচট্টগ্রাম ফটিকছড়ি নানুপুর জমিরিয়া ইন্টারন্যাশনাল মাদরাসার ছাত্র-শিক্ষকদের উপর উগ্রবাদী সংগঠন ছাত্র সেনার সন্ত্রাসীদের হামলার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও কঠোর প্রতিবাদ জানিয়েছেন হেফাজত আমির ও দারুল উলূম হাটহাজারির মহাপরিচালক শাইখুল ইসলাম আল্লামা শাহ আহমদ শফী।

হেফাজত আমীরের প্রেস সচিব মাওলানা মুনির আহমদ ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ‘শাইখুল ইসলাম আল্লামা আহমদ শফী নিরীহ মাদ্রাসা পরিচালক, শিক্ষক ও ছাত্রদের উপর সশস্ত্র এই হামলার ঘটনাকে বর্বরোচিত সন্ত্রাসি হামলা উল্লেখ করে অবিলম্বে হামলাকারি সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক কঠোর শাস্তি এবং আহতদের উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা ও ক্ষতিপুরন দাবি করেছেন।

পাশাপাশি বিক্ষুব্ধ তৌহিদি জনতাকে প্রতিশোধমূলক পাল্টা হামলা ও আইন হাতে তুলে নেওয়ার মতো ঘটনায় না জড়িয়ে শান্ত ও ঐক্যবদ্ধ হয়ে আত্মরক্ষামূলক সজাগ সতর্ক থাকার আহবান জানিয়েছেন।’

উল্লেখ্য, চট্টগ্রাম জেলার ফটিকছড়ি নানুপুরস্থ আল্লামা শাহ জমিরুদ্দিন নানুপুরী রহ.  প্রতিষ্ঠিত জমিরিয়া ইন্টারন্যাশনাল মাদরাসায় আজ বিকেল ৩ টায় সন্ত্রাসীরা অতর্কিত হামলা চালিয়ে মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা বেলাল উদ্দিন নানুপুরীকে গুরুতর আহত করেছে।

2016-08-26_212156প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, গতকাল বিকেল ৩ টার  দিকে ছাত্র সেনা নামে একটি উগ্রপন্থী সংগঠনের বেশ কিছু তরুণ চারটি জিপ গাড়িতে চড়ে মাদ্রাসার গেইটের সামনে গিয়ে উত্তেজনামুলক আক্রমণাত্মক শ্লোগান দিতে থাকে। এভাবে অনেক্ষণ চেঁচামেচি করলে মাদ্রাসার কিছু ছাত্র কৌতুহলী হয়ে গেইটে ছুটে আসে। তাৎক্ষণিক সন্ত্রাসীরা ছাত্রদের উপর উদ্দেশ্যমুলকভাবে হামলা চালায়। সেখানে আহত হন অনেকে।

ঘটনা সামাল দিতে মাদ্রাসার পরিচালক বেলাল উদ্দিন গেইটে আসলে তার উপরেও হামলে পড়ে সন্ত্রাসীরা। তার মাথায় ধারালো চাপাতি দ্বারা আঘাত করা হয়। এতে করে তার মাথার হাড় ভেঙ্গে যায়। এবং হাতের আঙ্গুলও কেটে দেওয়া হয়।

এলাকাবাসী এগিয়ে আসলে সসন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় স্থানীয় জনগণ মাওলানা বেলালকে উদ্ধার করে। তার অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।