কোনো সন্দেহ নেই যে, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে আমাদের যুদ্ধ সফল হবেই: এরদোগান

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

এরদোগানতুরস্কের দক্ষিণপূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ সিরনেকের সিজরেতে পুলিশের সদরদপ্তরে বিস্ফোরক ভর্তি ট্রাক নিয়ে আত্মঘাতী সন্ত্রাসী হামলায় ১১ পুলিশ কর্মকর্তা নিহত এবং ৭৫জন পুলিশ কর্মকর্তা আহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরো তিনজন সিভিলিয়ান আহত হয়েছেন।

স্থানীয় শুক্রবার সময় সকাল ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে বলে তুর্কি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন।

এ ঘটনার নিন্দা জানিয়েছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রজব তইয়্যব এরদোগান ও প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইলদিরিম। পৃথক বিবৃতিতে এ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে তারা হতাহতদের পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেছেন। সেই সঙ্গে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে যুদ্ধ চালিয়ে যাওয়ার দৃঢ় অঙ্গিকার ব্যক্ত করেছেন।

শুক্রবার এক বিবৃতিতে তুর্কি প্রেসিডেন্ট রজব তইয়্যব এরদোগান বলেন, ‘এমন এক সময়ে এই হামলার ঘটনা ঘটালো যখন সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে দৃঢ়তা বৃদ্ধির লক্ষ্যে সরকার দেশের ভেতরে এবং বাইরে সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে সর্বাত্মক যুদ্ধ করে আসছে।’

‘এখানে কোনো ধরণের সন্দেহ নেই যে, সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে আমাদের যুদ্ধ সফল হবেই’ বলে উল্লেখ করেন তিনি।

প্রেসিডেন্ট এরদোগান হামলায় পুলিশ কর্মকর্তাদের শহীদ বলে আখ্যায়িত করে তাদের পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান। সেই সঙ্গে হামলায় আহতদের দ্রুত সুস্থ্যতা কামনা করেন।

এদিকে আঙ্কারায় বুলগেরিয়ান প্রধানমন্ত্রী বয়কো বরিসোভকে সঙ্গে নিয়ে এক সাংবাদিক সম্মেলনে তুর্কি প্রধানমন্ত্রী বিনালি ইলদিরিম বলেছেন, ‘সন্ত্রাসীরা কোনোভাবেই তুরস্ককে জিম্মি করতে পারবে না।’

তুরস্কের দক্ষিণপূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ সিরনেকের সিজরেতে পুলিশের সদরদপ্তরে বিস্ফোরক ভর্তি ট্রাক নিয়ে হামলায় ১১ পুলিশ কর্মকর্তা নিহত এবং ৭৫জন পুলিশ কর্মকর্তা আহত হবার ঘটনার কয়েক ঘন্টা পর তিনি এই মন্তব্য করলেন।

‘আমাদের নাগরিকদের বুঝা এবং জানা উচিত যে, আমরা সব সন্ত্রাসী সংগঠনের বিরুদ্ধে সর্বাত্মক যুদ্ধ করে আসছি।’ বলে করেন যোগ তিনি।

ইলদিরিম বলেন, ‘তুরস্কের সন্ত্রাসবাদী সংগঠন পিকেকে যেকোনো মূল্যে পতন ঘটাতেই হবে। এক্ষেত্রে কোনো ধরনের ছাড় দেওয়া হবে না।’

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, ‘এতে কোনো সন্দেহ নেই যে, এই ঘৃণ্য হামলা বিচ্ছিন্নতাবাদী সন্ত্রাসী সংগঠন পিকেকে ঘটিয়েছে।’

সীমান্ত এলাকা থেকে সন্ত্রাসীরা নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত সিরীয় জারাবলুস শহরের ন্যায় তুর্কি বাহিনীর অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও প্রধানমন্ত্রী পুনরায় হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

তুর্কি স্বাস্থ্যমন্ত্রী রিসেপ আকদাগ বলেন, সকালে বিস্ফোরক ভর্তি আত্মঘাতী গাড়ি হামলার ঘটনায় অন্তত ৭০ জন আহত হয়েছেন। এর মধ্যে বেশ কিছুসংখ্যক ব্যক্তির অবস্থা আশঙ্কাজনক।

প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার সিরনেক প্রদেশের সাভসেট জেলা শহর থেকে আরদানাক এলাকায় যাওয়ার সময় প্রধান বিরোধী দলীয় নেতা কামাল কিলিকদারোগলুর গাড়িবহরকে লক্ষ্য করে সন্ত্রাসীরা গুলিবর্ষণ করে। ওই সন্ত্রাসী হামলার ঘটনার কয়েক ঘন্টার পর শুক্রবার সকাল ৭টার দিকে সিরনেকের সিজরেতে পুলিশ সদর দপ্তরে এই হামলার ঘটনা ঘটলো।

আনাদোলু নিউজ জানিয়েছে, সকাল ৭টার দিকে পুলিশ সদর দপ্তরের একটি চেকপোস্ট লক্ষ্য করে হামলাটি চালানো হয়।

সিজরের অবস্থান সিরনাক প্রদেশে। এই প্রদেশটি সিরিয়া ও ইরাকের সীমান্ত সংলগ্ন। অঞ্চলটি কুর্দি জনগোষ্ঠী অধ্যুষিত। হামলার জন্য কুর্দিপন্থী সশস্ত্র গ্রুপ পিকেকে দায়ী করছে তুর্কি সরকার।

আনাদোলু নিউজ এজেন্সি অবলম্বনে ড. সরদার এম. আনিছুর রহমান