মঙ্গলবার মীর কাসেম আলীর রিভিউর আদেশ

মীর কাসেম আলীজামায়াতের কর্মপরিষদ সদস্য মীর কাসেম আলীর আপিলের রায় পুনর্বিবেচনার রিভিউ আবেদনের শুনানি শেষ হয়েছে। আগামী ৩০ আগস্ট মঙ্গলবার আদেশের দিন ধার্য করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

রোববার প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার নেতৃত্বে পাঁচ বিচারপতির আপিল বেঞ্চে শুনানি শেষ হয়।

মীর কাসেমের পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে শুনানি করেন তার প্রধান আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন। রাষ্ট্রপক্ষে শুনানি করেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।

রবিবার সকালে প্রথমে শুনানি করেন আসামি পক্ষের আইনজীবিরা। এরপর শুরু হয় রাষ্ট্রপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন পেশ। এর মাঝে বেলা ১১টা থেকে সাড়ে পর্যন্ত কোর্ট মুলতুবি রাখার পরে পুণরায় শুনানি শুরু হয়।

এর আগে গত ২৪ আগস্ট আসামীপক্ষে সময় আবেদন নাকচ করে দিয়ে মীর কাসেম আলীর আইনজীবীকে শুনানি শুরুর নির্দেশ দেন প্রধান বিচারপতি। এরপরই মীর কাসেমের আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন শুনানি শুরু করেন।

এর মধ্য দিয়েই শেষ হলো মীর কাসেম আলীর মামলার চূড়ান্ত বিচারিক প্রক্রিয়া।

আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২ এর দেওয়া মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখে গত ৮ মার্চ মীর কাসেম আলীর মানবতাবিরোধী অপরাধ মামলার সংক্ষিপ্ত আকারে চূড়ান্ত রায় দেয় সর্বোচ্চ আদালত।

রায়ে মুক্তিযোদ্ধা জসিম উদ্দিনসহ ছয়জনকে হত্যা-গণহত্যার অভিযোগে ফাঁসির দণ্ডাদেশ বহাল রাখা হয় মীর কাসেম আলীর।

গত ১৯ জুন ৬৮ পৃষ্ঠার রিভিউ আবেদন করেন মীর কাসেম আলী। এতে ফাঁসির রায় বাতিল করে খালাস ও অভিযোগ থেকে অব্যাহতির আরজি জানান জামায়াতের এই শীর্ষ নেতা।

রিভিউ আবেদনে সর্বোচ্চ সাজার বিরুদ্ধে মোট ৬৮ পৃষ্ঠার আবেদনে ১৪টি কারণ দেখিয়ে মৃত্যুদণ্ড থেকে খালাস চেয়েছেন তিনি।

মীর কাসেম আলী তার বিরুদ্ধে আনা সকল অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। জামায়াতে ইসলামী একে রাজনৈতিক প্রতিহিংসার বিচার বলছে। জাতিসংঘ এবং আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থাগুলোও বিচারের স্বচ্ছতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে।