জানুয়ারি ২০, ২০১৭

উর্দুভাষীদের পেছনে রেখে দেশ এগোতে পারবে না

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

20160831_124944বাংলাদেশে প্রায় ৪ লাখেরও বেশি উর্দুভাষী রয়েছে। তাদেরকে পেছনে রেখে বাংলাদেশ সামনে এগোতে পারবে না।

বুধবার সিরডাপ মিলনায়তনে উর্দু স্পিকিং পিপলস্ ইউথ রিহ্যাবিলিটেশন মুভমেন্ট (ইউ.এস.পি.ওয়াই.আর.এম) আলোচনা সভায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক মেসবাহ কামাল এসব কথা বলেন। আলোচনার বিষয় ছিল ‘ক্যাম্পে বসবাসরত উর্দুভাষী জনগোষ্ঠীর মানবাধিকার ও পুর্নবাসন নিশ্চিত করা’।

ইউ.এস.পি.ওয়াই.আর.এম এর সভাপতি সাদাকাত খান ফাক্কুর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন লেখক ও গবেষক সৈয়দ আবুল মকসুদ, ইউ.এস.পি.ওয়াই.আর.এম-এর সাধারণ সম্পাদক শাহীদ আলী বাবলু প্রমুখ।

উর্দু ভাষাগোষ্ঠীদের সঙ্গে বাঙালিদের বিরোধ নেই। আমাদের বিরোধ অপরাধীদের সঙ্গে এ কথা উল্লেখ করে অধ্যাপক মেসবাহ কামাল বলেন, বিহারীদের নিজের মাতৃভাষা ভুলে গিয়ে বাংলা শিখতে হবে সেই কথা কেউ বলছে না। কেউ যদি বলে থাকে তা ভুল।

তিনি বলেন, দীর্ঘদিন ধরে উর্দুভাষী জনগোষ্ঠী অবহেলিত ও মানবেতন জীবন যাপন করছে। ১০ ফুট দৈর্ঘ ও ৮ ফুট প্রস্থের একটি রুমে একই পরিবারের প্রায় ১২ জন সদস্য বাস করছে। রাতে ঘুমানোর সময় পালা বদল করে ঘুমাতে হচ্ছে। ক্যাম্পগুলোতে বিশুদ্ধ পানির অভাব, বর্জ ও পয়ঃনিষ্কাশনের অব্যবস্থাপনার ফলে স্বাস্থ ঝুঁকি বাড়ছে। সরকারের উচিত এসব সমস্যা শিগগিরই সমাধান করা।

অধ্যাপক মেসবাহ কামাল বলেন, মুক্তিযুদ্ধে বিহারীদের কিছু অংশ বিরোধিতা করেছে কিছু অংশ গোপনে মুক্তিযুদ্ধের সমর্থন করেছে। যারা গোপনে সমর্থন করেছেন তাদের কর্মকা- চোখে পড়েনি। আর যারা বিরোধিতা করেছে তাদের কর্মকা- চোখে পড়েছে। সেদিক থেকে এখনো বিহারীদের মধ্যে যারা পাকিস্তানের দালাল হিসেবে কাজ করছে তাদেরকে চিহ্নিত করে বিচার করতে হবে।

আলোচনা সভায় আবুল মকসুদ বলেন, ১৯৪৮-৫২ সালের ভাষা আন্দোলনে উদর্েুর বিরুদ্ধে বাঙালিরা কথা বলেনি। যারা বাঙালিদের উপরে উর্দু চাপিয়ে দিতে চেয়েছে তাদের বিরুদ্ধে কথা বলেছে। একটি রাষ্ট্রে ভিন্ন ভাষা-সংস্কৃতি মানুষ বাস করবে এটি একটি দেশের সৌন্দর্য। সেখানে কেউ যদি কারো ভাষা-সংস্কৃতিতে বাধা সৃষ্টি করে তা হবে মানবাধিকার লঙ্ঘন। মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় অসাম্প্রদায়িক রাষ্ট্র গঠন করতে হবে। সেখানে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিতা হবে। আমাদের দেশে আইন আছে কিন্তু আইনের শাসন নেই। এই অবস্থায় তো কোনো রাষ্ট্র চলতে পারে না।

২০০৮ সালে নাগরিকত্ব অর্জন করলেও এখন পর্যন্ত পাসপোর্ট সমস্যা দূর হয়নি এ কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, পাটসপোর্ট সমস্যা দূর হলে তারা বাংলাদেশে টাকা পাঠাবে, পাকিস্তানে নয়।

আস