অবৈধ পন্থায় উপার্জিত টাকা দিয়ে মসজিদ নির্মাণ করা যাবে কি?

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | ইসলাম ডেস্ক 


হাজীগঞ্জ ঐতিহাসিক বড় মসজিদ, চাঁদপুর (প্রতীকী ছবি)

আমাদের দেশ মুসলিম প্রধান দেশ। স্বভাবতই এখানে মসজিদের সংখ্যা অনেক বেশি। অনেকে এমনও আছেন যারা মা-বাবার আত্মার শান্তি কামনায় মসজিদ নির্মাণ করেন। তারা অনেকেই বিভিন্ন পেশাজীবীর হয়ে থাকেন।

তাই প্রশ্ন উঠে সুদখোর, হারাম ব্যবসায় জড়িত, চাঁদাবাজ ও সন্ত্রাসীর টাকা অর্থাৎ হারাম উপায়ে উপার্জিত টাকা দিয়ে মসজিদ নির্মাণ করা যাবে কি?

আমরা সবাই জানি মসজিদ হলো আল্লাহর ঘর। আল্লাহ তায়ালা যেমন পবিত্র তাঁর ঘরও তেমন পবিত্র হওয়া উচিত। একটি ঘটনা বর্ণিত আছে, মক্কার কুরাইশরা যখন কাবা ঘর নির্মাণ করছিলো একপর্যায়ে তাদের হালাল অর্থ শেষ হয়ে যায়। তখন তারা হাতিমকে বাহিরে রেখে কাজ সম্পন্ন করে। এখানে উল্লেখ্য বিষয় হলো, তারা কাফের হয়েও হারাম অর্থে আল্লাহর ঘর নির্মাণ করেনি।

শরিয়তের হুকুম: হারাম অর্থ মসজিদের কাজে ব্যয় করা যাবেনা। এতে মসজিদকে অপবিত্র করা হয়। মসজিদে দানকৃত অর্থের ব্যাপারে যদি জানা থাকে যে তা হারাম, তাহলে তা মসজিদে ব্যাবহার করা যাবেনা।

আর যদি দানকৃত অর্থের অধিকাংশ হালাল হয় তাহলে মসজিদের কাজে ব্যয় করতে পারবে। আর যদি অধিকাংশ হারাম হয় তাহলে ওই ব্যাক্তির দান গ্রহণ করা জায়েজ হবে না এবং মসজিদের কাজে ব্যয়ও করতে পারবে না। (ইমদাদুল ফতোয়া)।


চলছে ইনসাফ শো | পর্ব : ৫৫

ইনসাফ সম্পাদক সাইয়েদ মাহফুজ খন্দকারের (Mahfuj Khandakar) সঞ্চালনায় চলছে ইনসাফ শো।অতিথি : মাওলানা জুনাইদ আল হাবীবসহসভাপতি : জমিয়তে উলামায়ে ইসলামপর্ব : ৫৫

Posted by insaf24.com on Saturday, November 24, 2018