জানুয়ারি ১৯, ২০১৭

মাজার পূজারী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করুন: আল্লামা মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

2016-09-01_165135
ফটিকছড়ি ইউএনও বরাবর স্মারকলিপি প্রদান – ছবি : উসমান কাসেমী

জমিরিয়া মাদ্রাসায় সন্ত্রাসীদের বর্বরোচিত হামলায় জড়িত সন্ত্রাসীদের বিচারের দাবিতে আয়োজিত, ফটিকছড়ি ইসলামী আইন বাস্তবায়ন কমিটির মানববন্ধন কর্মসূচি শেষে এক বিশাল সমাবেশ বিবিরহাট বাজারে নাজিরহাট বড় মাদ্রাসার শিক্ষাপরিচালক আল্লামা সলিম উদ্দীনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়।

সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে বাবুনগর ইসলামী আরবী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান পরিচালক, প্রবীণ আলেম আল্লামা শাহ্ মুহিব্বুল্লাহ বাবুনগরী বলেন, নামধারী সুন্নি সন্ত্রাসীরা মুসলমান সেজে মুসলমানদের ঈমান চুরি করতেছে। তারা মূলত সাম্রাজ্যবাদীদের এদেশীয় এজেন্ট।

আল্লামা বাবুনগরী বলেন, মাজার পূজারী ও নাস্তিক্যবাদী অপশক্তি ঐক্যবদ্ধ হয়ে কওমী মাদ্রাসাকে ধ্বংস করার ষড়যন্ত্র করতেছে কারন তারা জানে এই ভূখণ্ডে যতদিন কওমী মাদ্রাসা এবং কওমী ওলামায়ে কেরাম আছে ততদিন এদেশে ইসলাম নিরাপদ থাকবে, সাধারণ মানুষ ইসলামের সঠিক ব্যাখ্যা পাবে আর নাস্তিক্যবাদী মাজার পূজারীরা নিপাত যাবে।

তিনি আরো বলেন, আদর্শবান দেশপ্রেমিক নাগরিক গড়ার কারিগর কওমী ওলামায়ে কেরামকে জঙ্গি প্রমান করতেই নিজেদের পালিত সন্ত্রাসীদের দিয়ে দেশের প্রখ্যাত বুজুর্গ, আল্লামা শাহ জমিরুদ্দিন নানুপুরী রহ. এর সন্তান, চট্টগ্রাম নানুপুর জমিরিয়া ইন্টারন্যশনাল মাদ্রাসার পরিচালক, মাওলানা বেলাল উদ্দিন নানুপুরীসহ জমিরিয়া মাদ্রাসার ছাত্র-শিক্ষকদের উপর বর্বরোচিত নগ্ন সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছে। যা মূলত কওমী মাদ্রাসা ধ্বংসের নগ্ন ষড়যন্ত্রের অংশ।

তিনি আরো বলেন, এধরণের সন্ত্রাসী হামলা শুধু কওমী মাদ্রাসা নয়, দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্বের বিরুদ্ধেও। এধরণের ন্যাক্কারজনক সন্ত্রাসী হামলা দেশের সার্বিক জননিরাপত্তা ও সামাজিক নিরাপত্তার জন্যও হুমকি স্বরূপ।

তাই মাওলানা বেলালা উদ্দীন ও জমিরিয়া মাদ্রাসার ছাত্র-শিক্ষকদের উপর নগ্ন হামলায় জড়িত সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে, অন্যতায় আন্দোলনের দাবানল জ্বলে উঠবে সারা বাংলাদেশে।

আল্লামা বাবুনগরী মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারী মাদ্রাসার ছাত্র-শিক্ষকসহ সকল তাওহীদিজনতাকে আন্তরিক মোবারকবাদ জানিয়ে আইন শৃঙ্খলাবাহীনিকে উদ্দোশ্য করে বলেন, আজকে প্রমান হয়েছে মাজার পূজারী ভন্ডদের বিরুদ্ধে বৃহত্তর ফটিকছড়ির সর্বস্তরের তাওহীদি জনতা ঐক্যবদ্ধ আছে। আর কালক্ষেপণ না করে অবিলম্বে সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করুন অন্যতায় তাওহীদি জনতা সন্ত্রাসীদের প্রতিহত করবে, তখন যে কোন অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার দায়দায়িত্ব সরকারকেই বহন করতে হবে।

সমাবেশ শেষে নেতৃবৃন্দরা ফটিকছড়ি ইউএনও বরাবর স্মারকলিপি প্রদান করেন। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, আল্লামা সালাহ উদ্দীন নানুপুরী, আল্লামা মুফতি মাহমুদুল হাসান, মাওলানা আইয়ুব বাবুনগরী, মাওলানা মঈনুদ্দীন রুহী, মাওলানা ওসমান শাহনগরী, মাওলানা হাবিবুল্লাহ আযাদী, মাওলানা মুফতি মঈনুদ্দীন, মাওলানা কুতুব উদ্দীন নানুপুরী, মাওলানা সেলিম উদ্দীন দৌলতপুরী, মাওলানা আমিন শরিফ, মাওলানা জুনায়েদ জাওহার, মাওলানা ইউনুচ, মাওলানা হাবিবুর রহমান হাকিম, মাওলানা ইকবাল খলিল, মাওলানা ইরফান সাদেক, মাওলানা সালামত উল্লাহ বাবুনগরী, মাওলানা ওসমান কাসেমী মাওলানা অলি উল্লাহ আল হাসান প্রমুখ।