ইজতেমা বানচালের ষড়যন্ত্র সফল হতে দেয়া যাবেনা: মাওলানা মামুনুল হক (ভিডিও)

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | আরিফ মুসতাহসান


জামিয়া রাহমানিয়া মাদরাসার শাইখুল হাদীস মাওলানা মামুনুল হক বলেছেন, বিতর্কিত আলেম মাওলানা সা’দ কান্ধলবীর অনুসারীদের ষড়যন্ত্রে যদি বিশ্ব ইজতেমা বানচাল করার চেষ্টা করা হয় তাহলে দেশের তাওহীদি জনতা তাদের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াবে। তাদের ষড়যন্ত্র সফল হতে দেয়া যাবেনা।

সোমবার (০৩ ডিসেম্বর) রাজধানীর মোহাম্মদপুরস্থ কওমী মাদরাসা সমূহের ঐক্যবদ্ধ ফোরাম-ইত্তেফাকুল মাদারিসিল কওমিয়া আয়োজিত বিক্ষোভ সমাবেশের বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

মাওলানা মামুনুল হক বলেন, ১ ডিসেম্বরে বিতর্কিত আলেম মাওলানা সা’দ কান্ধলবীর অনুসারী সন্ত্রাসীদের হামলার সময় প্রশাসন কোনো ভূমিকা পালন করেনি। প্রশাসন চাইলে এমন ঘটনার সামাল দিতে পারতো।
এসময় তিনি প্রশাসনকে হুশিয়ারি দিয়ে বলেন, ১ ডিসেম্বরে সন্ত্রাসীদের হামলার মতো যদি আর কোনো নীল নকশা বাস্তবায়ন করতে দেয়া হয় তাহলে তাওহীদি জনতা প্রশাসনের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলবে।

মাওলানা মামুনুল হক ১ডিসেম্বর আহতদের কথা উল্লেখ করে বলেন, সেদিন তাদের সন্ত্রাসীরা নিরীহ মাদরাসার ছাত্র, আলেম-উলামা ও তাবলীগের সাথীদের উপর এমন ন্যাক্কারজনক হামলা চালিয়েছে যা হিংস্র হায়নাদেরকেও হার মানিয়েছে। ছাত্রদের যখন আহত অবস্থায় বিভিন্ন হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় তখন কর্তব্যরত চিকিৎসকরাও এসব দেখে হতভম্ব হয়ে যান। এরকম নিস্পাপ-মাসুম বাচ্চাদের উপর এভাবে কেউ হামলা করে আহত করতে পারে!

মাওলানা মামুনুল হক বিতর্কিত আলেম মাওলানা সা’আদ কান্ধলভীর পথভ্রষ্টের বিষয়টি উল্লেখ্য করে বলেন, মাওলানা সা’আদ যখন তার বিভিন্ন বয়ানে কুরআন-হাদীস ও ঈমান-আক্বীদার খেলাফ বক্তব্য দিতে আরম্ভ করে মুসলিম বিশ্বের অন্যতম প্রধান ইলমী মারকাজ ‘দারুল উলুম দেওবন্দ’ থেকে তাকে সতর্ক করা হয়।

দারুল উলুম দেওবন্দ থেকে বলা হয়েছিল, এভাবে যদি চলতে থাকে তাহলে এটি ধীরে ধীরে একটি জঘন্যতম বাতিল ফেরকা রূপে আত্মপ্রকাশ করবে। ইতিমধ্যে তারা ১ ডিসেম্বর তাদের প্রকৃত রূপ সকলের নিকট উন্মোচন করেছে।

মাওলানা মামুনুল হক আরো বলেন, আপনারা সা’আদপন্থী ওয়াসিফ-নাসিমদের মতো দালালদের চিহ্নিত করে তাদের বয়কট করুন। আমি বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের নামে নামকরণ করা এই মোহাম্মদপুর থেকে সা’আদপন্থী সন্ত্রাসীদের বয়কট ঘোষণা করছি।

মাওলানা মামুনুল হক ছাড়াও মহাসমাবেশে আরো বক্তৃতা করেন, মাওলানা মাহফুজুল হক, মাওলানা জালালুদ্দিন, মাওলানা ফয়সাল প্রমুখ উলামায়ে কেরাম। উপস্থিত ছিলেন মুফতী হাবিবুল্লাহ মাহমুদ কাসেমী, মুফতী মামুন আব্দুল্লাহ কাসেমী, মাওলানা তালহা ও ইত্তেফাকের দায়িত্বশীল ওলামায়ে কেরাম।