জানুয়ারি ১৯, ২০১৭

সোমবার অর্ধদিবস হরতালের ঘোষণা জামায়াতের

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী

দলের কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদ সদস্য মীর কাসেম আলীর ফাঁসির দণ্ডাদেশ কার্যকর করার প্রতিবাদে ৫ সেপ্টেম্বর সোমবার সকাল ৬টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত সারাদেশে হরতালের ঘোষণা দিয়েছে জামায়াতে ইসলামী।

শনিবার দিনগত রাত ১১টা ৪ মিনিটে দলটির মে্ইল থেকে আসা এক বিবৃতিতে এ কর্মসূচি ঘোষণা করেন জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমান।

এছাড়া আগামীকাল রবিবার দেশে-বিদেশে দোয়া পালন করতে আহ্বান জানিয়েছেন জামায়াতের এই নেতা।

বিবৃতিতে বলা হয়, হাসপাতাল, অ্যাম্বুলেন্স, ফায়ার সার্ভিস, হজযাত্রীদের বহনকারী যানবাহন, সংবাদপত্রের সাথে সংশ্লিষ্ট গাড়ি এবং ওষুধের দোকান হরতালের আওতামুক্ত থাকবে।

মীর কাসেমের ফাঁসিকে ‘পরিকল্পিতভাবে মিথ্যা মামলায় দণ্ডিত করে সরকার কর্তৃক ফাঁসিকাষ্ঠে ঝুঁলিয়ে হত্যা’ করেছে বলে মন্তব্য করেছেন জামায়াত নেতা শফিকুর রহমান। তার দাবি, ‘সরকার জামায়াতে ইসলামীকে নেতৃত্ব শূন্য করার যে ষড়যন্ত্র করছে, তারই অংশ হিসেবে মীর কাসেম আলীকে ফাঁসিকাষ্ঠে ঝুলিয়ে হত্যা করা হয়েছে।’

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘শহীদ মীর কাসেম আলীকে তথাকথিত মানবতাবিরোধী অপরাধে জড়িত থাকার মিথ্যা অভিযোগে মৃত্যুদণ্ড প্রদান করা হয়েছে। সরকার পক্ষ তার বিরুদ্ধে আনীত কোনও অভিযোগই প্রমাণ করতে পারেনি। তার বিরুদ্ধে যে সব অভিযোগ উত্থাপন করা হয়েছে, তার সাথে তার কোনও সংশ্লিষ্টতা নেই।’

বিবৃতিতে আরও বলা হয়, ‘সরকার প্রতিহিংসার বশবর্তী হয়ে জনাব মীর কাসেম আলীকে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে ৩ সেপ্টেম্বর রাত সাড়ে ১০টায় ফাঁসি দিয়ে হত্যা করেছে। এ ঘটনা আবারও বাংলাদেশের ইতিহাসে এক কলঙ্কজনক অধ্যায় হিসেবে চিহ্নিত হয়ে থাকবে। জামায়াতে ইসলামীকে নিশ্চিহ্ন করার হীন উদ্দেশ্যেই সরকার মীর কাসেম আলীসহ জামায়াতের শীর্ষ নেতৃবৃন্দকে একের পর এক ফাঁসি দিয়ে হত্যা করছে।’

জামায়াত নেতার ভাষ্য, ‘কাসেমের প্রতি ফোঁটা রক্তের বদৌলতে এ দেশে ইসলামী কল্যাণ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার কার্যক্রম আরেক ধাপ এগিয়ে যাবে ইনশাআল্লাহ এবং গণতন্ত্র, মানবাধিকার, আইনের শাসন আরও মজবুত ও দৃঢ় ভিত্তি লাভ করবে।’