ইজতেমার ময়দান নয় শুধুমাত্র মসজিদ ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে আলেমদের কাছে

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | এম  মাহিরজান



গত ১ ডিসেম্বর টঙ্গী বিশ্ব ইজতেমার ময়দানে আলেম উলামা, মাদরাসার ছাত্র ও সাধারণ তাবলীগি সাথীদের উপর অতর্কিত সশস্ত্র হামলা চালায় বিতর্কিত আলেম মাওলানা সা’দ কান্ধলবীর অনুসারী ওয়াসিফুল ইসলাম গং। এতে ১ জন নিহত ও আহত হয় অসংখ্য।

হামলার পর থেকে ময়দানের নিয়ন্ত্রণ পরিপূর্ণ রুপে প্রশাসনের হাতে চলে যায়। অধ্যবধি প্রশাসনের নিয়ন্ত্রনেই আছে ইজতেমার ময়দান। তবে এর মধ্যে গতকাল জুম’আর দিন ময়দানে অবস্থিত মসজিদে আলেমদেরকে নামাজের অনুমতি দিয়েছে প্রশাসন।

এ ঘটনার পরপরেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ অনলাইনে খবর ছড়িয়ে পড়ে যে, ময়দান আলেমদের হাতে হস্তান্তর করা হয়েছে।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে, বর্তমান দাওয়াতে তাবলীগের সমস্যাগুলো নিয়ে কাজ করা আলেমদের অন্যতম, মিরপুরের জামিয়া হুসাইনিয়া আরজাবাদ মাদরাসার মহাপরিচালক মাওলানা বাহাউদ্দিন জাকারিয়া বলেন,  ময়দান আলেমদের হাতে বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে, কথাটা সঠিক নয়। গত পরশু বেফাকের মিটিং চলা অবস্থায় প্রশাসন থেকে ফোন দিয়ে টঙ্গীর ময়দান মসজিদের ইমাম ও মোয়াজ্জেনকে পাঠাতে বলা হয়। তার পরিপ্রেক্ষিতে আলেমদের পক্ষ থেকে বলা হয়, শুধু ইমাম-মোয়াজ্জিনকে পাঠালে বিষয়টার সমাধান হয়ে যাবে এমন নয়। মাঠ যেহেতু এখনো প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণে, তাই আনুষ্ঠানিক ভাবে মুরব্বীদের হাতে বুঝিয়ে দিতে হবে।

মাওলানা বাহাউদ্দিন জাকারিয়া আরো বলেন, আজ (৮ ডিসেম্বর) আরজাবাদ মাদরাসায় দাওয়াতে তাবলীগের শীর্ষ মুরব্বী মাওলানা মুহাম্মাদ জুবায়ের ও মাওলানা রবিউল হক এসেছিলেন। তারাও জানিয়েছেন যে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা চলছে। এবং তারা আশাবাদী যে, আলেমদের কাছেই খুব দ্রুত ময়দান হস্তান্তর করবে প্রশাসন।

সাম্প্রতিক সময়ে দাওয়াতে তাবলীগের সমস্যা নিয়ে কাজ করা উত্তরা গাওয়াইর মাদরাসার মুহাদ্দিস ও আলেম সাহিত্যিক মুফতী জহির ইবনে মুসলিম বলেন, ময়দান আলেমদের হাতে বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে মর্মে যে গুজব চড়াচ্ছে, তা সঠিক নয়। তবে বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে। টঙ্গীর মসজিদে গতকাল জুম’আর নামাজ আদায় হয়েছে। এছাড়া আজ ফজরের নামাজও আদায় হয়েছে।

গত ২ ডিসেম্বর দাওয়াতে তাবলীগের মুরব্বীদের আয়োজনে নজিরবিহীন সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠকারী তাবলীগের মুরব্বী মাওলানা আমানউল্লাহ জানান, ময়দান আলেমদের হাতে ফিরিয়ে দেয়া হয়নি এখনো। তবে ময়দানের যে মসজিদ, তাতে বর্তমানে নামাজ আদায় হচ্ছে। দাওয়াতে তাবলীগের যে নেজামী আমল (নিয়মতান্ত্রিক কর্মকাণ্ড) তা এখনো পরিপূর্ণ ভাবে মসজিদে শুরু হয়নি। তা পরিপূর্ণ রুপে শুরু হচ্ছে কিনা, বা শুরু করা যবে কিনা, তা জানা যাবে আগামী বৃহস্পতিবার। কারণ বৃহস্পতিবার দাওয়াতে তাবলীগের মারকাজ মসজিদগুলোতে সবচেয়ে বড় আয়োজন ‘শবগুজারী’ অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে।

ঐক্যের বিকল্প নাই | উবায়দুল্লাহ সায়েম

ঐক্যের বিকল্প নাই | উবায়দুল্লাহ সায়েম

Posted by insaf24.com on Friday, December 7, 2018