প্রকাশ্যে নৌকা মার্কায় ভোট চাইলেন ওসি, ভিডিও ভাইরাল

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | সোশ্যাল মিডিয়া ডেস্ক



একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রকাশ্যে নৌকার পক্ষে ভোট চাইলেন সাতক্ষীরা কলারোয়া থানার ওসি মারুফ আহম্মেদ।

বৃহস্পতিবার বিকালে কলারোয়া উপজেলার জিকেএমকে পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে শিল্পকলা একাডেমি আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে তিনি নৌকা মার্কায় ভোট চান। তার এ বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মুহূর্তে ভাইরাল হয়ে যায়।

বক্তব্যের শুরুর দিকে ওসি মারুফ বলেন,‘যারা অনেক কষ্ট করে জার্নি করে ঢাকা থেকে আজকে কলারোয়ায় এসে এই অনুষ্ঠান করছেন, আমি কলারোয়া থানা তথা কলারোয়াবাসীর পক্ষ থেকে তাদেরকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।’

তিনি বলেন, আজকে আমি প্রশাসনের পক্ষ থেকে একটা কথা বলতে চাই। স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তিকে আপনারা ভোট দেবেন, নৌকা মার্কায় ভোট দেবেন। কারণ এই সরকার যত উন্নয়ন করেছে, এই সরকার যেভাবে জনগণের পাশে থেকেছে, আগামীতেও যেন আপনাদের পাশে থেকে সকল বাধা বিপত্তি দূর করে কলারোয়াকে একটি মডেল জেলা হিসেবে উন্নীত করে। এখানকার মানুষ যেন গর্ব করে বলতে পারে যে, আমি কলারোয়ার অধিবাসী, আমি সাতক্ষীরার অধিবাসী।

ওসি বলেন, ‘আমি আশাবাদী কোনো পেশীশক্তি, কোনো দুর্বৃত্তদের জায়গা অন্তত: কলারোয়া, সাতক্ষীরাতে হবে না ইনশাআল্লাহ। আপনারা নির্ভয়ে ভোটকেন্দ্রে যাবেন। আপনার ব্যালট, আপনার বুলেট, আপনি ভোটের মাধ্যমে দেখিয়ে দেবেন যে, আপনি স্বাধীনতার স্বপক্ষের শক্তিতে আছেন। তাই আমাদের জননেত্রী, বাংলাদেশ সরকারের এই নির্বাচনকালীন প্রধানমন্ত্রী তথা আমাদের বঙ্গবন্ধুর কন্যা, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নেত্রী, আমাদের সভানেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করার জন্য আপনার একটি ব্যালট, আপনার একটি ভোট অতি মূল্যবান। আপনি আপনার ভোটটি সযত্নে সুযোগ্য জায়গায় দিয়ে আপনার অবস্থান জানান দেবেন।

অনুষ্ঠানে সাতক্ষীরা-১ (তালা-কলারোয়া) আসনে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ওয়ার্কাস পার্টির মুস্তফা লুৎফুল্লাহ, কলারোয়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফিরোজ আহম্মেদ স্বপনসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।


ইনসাফ সাংবাদিকতা কোর্স

ইনসাফ সাংবাদিকতা কোর্সদেশের প্রথম ইসলামী ঘরানার অনলাইন পত্রিকা ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকমের আয়োজনে শুরু হতে যাচ্ছে স্বল্পমেয়াদী সাংবাদিকতা কোর্স।অংশগ্রহণ করতে যোগাযোগ করুন এই নাম্বারে-০১৭১৯৫৬৪৬১৬এছাড়াও সরাসরি আসতে পারেন ইনসাফ কার্যালয়ে।ঠিকানা – ৬০/এ পুরানা পল্টন ঢাকা ১০০০।

Posted by insaf24.com on Monday, October 29, 2018


পর্যবেক্ষকরা মূর্তির মতো দাঁড়িয়ে ভোট পর্যবেক্ষণ করবেন: ইসি সচিব
নভেম্বর ২০, ২০১৮
ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি


নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ বলেছেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পর্যবেক্ষকরা মূর্তির মতো দাঁড়িয়ে পর্যবেক্ষন করবেন। এমনকি ভোটগ্রহণের সময় যতই ঝামেলা হোক না কেন মোবাইল ফোন ব্যবহার করতে পারবেন না ।

মঙ্গলবার (২০ নভেম্বর) সকালে আগারগাঁস্থ নির্বাচন ভবনে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে ১১৮টি পর্যবেক্ষক সংস্থার প্রতিনিধিদের এক ব্রিফিং এসব কথা বলেন তিনি ।

ইসি সচিব বলেন, আপনারা এমন কিছু করবেন না যেন নীতিমালা ভঙ্গ হয়, নীতিমালা ভঙ্গ করলে আপনাদের নিবন্ধন বাতিল করা হবে। সাংবাদিক বন্ধুরা আপনাদের সামনে ক্যামেরা ধরবেন কিছু বলার জন্য। আপনি গণমাধ্যমে কোন কথা বলতে পারবেন না, কোন কমেন্ট করতে পারবেন না। পর্যবেক্ষকরা কোন লাইভে অংশ ও ইন্টারভিউ দিতে পারবেন না। এমন কিছু করতে পারবেন না যাতে মনে হয় তিনি কোনো প্রার্থীর পক্ষে কাজ করছেন। পর্যবেক্ষকদের আচরণ নিরপেক্ষ হতে হবে।

তিনি বলেন, ভোট কেন্দ্রে পর্যবেক্ষকরা শুধু দেখবেন, পর্যবেক্ষণ করবেন। পর্যবেক্ষণ সংস্থা রিপোর্ট জমা দেয়ার আগে কোনো মন্তব্য করতে পারবেন না। শেষ হলে প্রয়োজনে সংবাদ সম্মেলন করতে পারেন ও রিপোর্ট কমিশনে জমা দিতে পারেন।রাষ্ট্রীয় সংস্থার কোনো সদস্যকে পর্যবেক্ষক হিসেবে নিয়োগ না দেয়ার জন্য নির্দেশনা দেন তিনি।

তিনি আরো বলেন, পর্যবেক্ষকরা ভোট কেন্দ্রে মোবাইল ফোন নিয়ে যেতে পারবেন না একটা কেন্দ্রে মোবাইল ফোন থাকবে দুইজনের কাছে। প্রিজাইডিং অফিসার ও পুলিশ ইনচার্জের কাছে। পর্যবেক্ষকরা ভোট কেন্দ্রে ছবি তুলতে, কোন গোপন কক্ষে যেতে, কাউকে নির্দেশনা দিতে এবং প্রিজাইডিং, পোলিং অফিসারদের কোন পরামর্শ দিতে পারবেন না বলেও জানান ইসি সচিব।

ইসি সচিব জানান, এবার নির্বাচন পর্যবেক্ষণে স্থানীয় নিবন্ধিত ১১৮টি সংস্থাকে ২১ নভেম্বরের মধ্যে ইসিতে আবেদন করতে হবে। আর বিদেশি পর্যবেক্ষকদের সুযোগ-সুবিধা নিশ্চিতে আগামী ২৫ নভেম্বর পররাষ্ট্র, স্বরাষ্ট্র, তথ্য মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে বসবে ইসি। বিদেশি পর্যবেক্ষক সংস্থাগুলো ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে প্রয়োজনীয় কাজ শেষ করবে বলে আশা করছে ইসি।

তিনি জানান, আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ৪০ হাজার ২০০টি কেন্দ্রের প্রতিটিতে একজন করে পর্যবেক্ষক রাখার একটা নীতিমালা করা হবে। পর্যবেক্ষকদের বয়স ২৫ বছরের নিচে নয় এবং এসএসসি পাসের যোগ্যতা থাকতে হবে।

অতিরিক্ত সচিব মোখলেছুর রহমানে সভাপতিত্ব যুগ্ম সচিব খন্দকার মিজানুর রহমান ও এ এস এম আসাদুজ্জামানসহ ইসি সচিবালয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।