কোটা আন্দোলনের নেতাদের উপর হামলায় আহত ৫; শিগগিরই কর্মসূচী দেয়া হবে : নুরুল

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি


টিএসসি এলাকায় হামলায় রক্তাক্ত কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা সোহরাব হোসেন।
ছবি: সংগৃহীত।

কোটা সংস্কার আন্দোলনে নেতৃত্ব দেওয়া সংগঠন বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নেতাদের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে।

এ ঘটনায় পাঁচ নেতা আহত হয়েছেন।

রোববার বেলা আড়াইটার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি এলাকায় নিরাপদ বাংলাদেশের দাবিতে মানববন্ধন করতে গিয়ে মারধরের শিকার হয়েছেন তাঁরা। ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা তাঁদের মারধর করেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

সংগঠনটির যুগ্ম আহ্বায়ক সোহরাব হোসেন মুঠোফোনে গণমাধ্যমকে বলেন, ‘নিরাপদ বাংলাদেশ চাই’–এর ব্যানারে বেলা তিনটায় রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে তাঁদের কর্মসূচি ছিল। কর্মসূচি শুরু হওয়ার আগে তাঁরা টিএসসিতে অপেক্ষা করছিলেন। একপর্যায়ে টিএসসিতে দুপুরের খাবার খেতে গেলে ছাত্রলীগের বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন হল শাখার ৬০-৭০ জন নেতা-কর্মী তাঁদের ওপর অতর্কিত হামলা চালান।

সোহরাবের অভিযোগ, তাঁকেসহ তাঁদের সংগঠনের যুগ্ম আহ্বায়ক বিন ইয়ামিন মোল্লা ও জসীম উদ্দিন আকাশকে মারধর করেন ছাত্রলীগের ওই নেতা-কর্মীরা। মারধরের পর জসীমকে তুলে নিয়ে গেছেন ছাত্রলীগ নেতা-কর্মীরা। রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে সোহরাব ও ইয়ামিন চিকিৎসাধীন।

তিনি আরও বলেন, হামলায় নেতৃত্ব দেওয়া সোহানুর রহমান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউর রহমান হল শাখা ছাত্রলীগের সহসভাপতি আর শহীদুল শান বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ সার্জেন্ট জহুরুল হক হল শাখা ছাত্রলীগের স্কুলছাত্র–বিষয়ক সম্পাদক।

এদিকে, সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক নুরুল হক বলেন, তাঁদের সংগঠনের পাঁচজন যুগ্ম আহ্বায়ককে মারধর করা হয়েছে। তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। আহত ছাত্ররা হলেন সোহরাব হোসেন, বিন ইয়ামিন মোল্লা, জসীম উদ্দিন, আহমেদ কবির ও মো. তারেক রহমান।

তিনি মারধরের ঘটনার নিন্দা জানিয়ে নুরুল হক বলেন, দেশের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে উদ্বেগ-উৎকণ্ঠা থেকে রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে একটা মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়েছিল। আগের ঘটনাগুলোতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ছাত্রলীগের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা না নেওয়ায় তারা এসব কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে।’

এছাড়া, এই হামলার প্রতিবাদে কর্মসূচি দেবেন বলেও জানান তিনি।


নির্বাচন আর সন্ত্রাস একসঙ্গে চলতে পারে না : ইসি মাহবুব তালুকদার
Date: ডিসেম্বর ২৩, ২০১৮
ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি


নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার বলেছেন, নির্বাচন এবং সন্ত্রাস একসঙ্গে চলতে পারে না।

আজ রোববার সকালে সিলেটে বিভাগীয় কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময়ে তিনি এসব কথা বলেন।

মাহবুব তালকুদার বলেন, ভোটাররা যাতে ভোট দিয়ে নিরাপদে বাড়ি ফিরতে পারে তা নিশ্চিত করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, নির্বাচন আর সন্ত্রাস একসঙ্গে চলতে পারে না। কর্মকর্তাদের নিরপেক্ষতা বজায় রাখতে হবে। নির্বাচনের নিরপেক্ষতা নিয়ে কেউ যাতে আঙুল তুলতে না পারে সে বিষয়ে সবাইকে নজর রাখতে হবে।।

এ সময় নির্বাচনে দায়িত্বপালনকারী কর্মকর্তাদের পক্ষপাতমূলক আচরণ না করার নির্দেশ দেন মাহবুব তালুকদার।

এতে সিলেট বিভাগীয় কমিশনার মেজবাহ উদ্দিন চৌধুরী ও চার জেলার রিটার্নিং কর্মকর্তাসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

সরাসরি>>সিলেটের আলিয়া মাদরাসা মাঠের জনসভায় বক্তব্য রাখছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

Posted by insaf24.com on Saturday, December 22, 2018