ওলামায়ে কেরামগনের তত্ত্বাবধানে দাওয়াতে তাবলীগের কাজ চলবে : মাওলানা বোখারী | insaf24.com

ওলামায়ে কেরামগনের তত্ত্বাবধানে দাওয়াতে তাবলীগের কাজ চলবে : মাওলানা বোখারী

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | মাহবুবুল মান্নান


মাওলানা আব্দুল হালিম বোখারী

চট্টগ্রাম জামেয়া ইসলামিয়া পটিয়ার মুহতামিম ও শায়খুল হাদিস মাওলানা মুফতী আবদুল হালিম বোখারী বলেছেন,ইসলামের শুরু থেকে ওলামায়ে কেরামদের তত্ত্বাবধানে দাওয়াতে তাবলীগের কাজ পরিচালিত হয়ে আসছে।ভবিষ্যতেও ওলামায়ে কেরামগনের সঠিক তত্ত্বাবধানে তাবলীগের কাজ চলবে। কেননা হক্কানী ওলামায়ে কেরামগনই হচ্ছে জাতির রাহবার।

তিনি বৃহস্পতিবার (০৩ জানুয়ারি) পটিয়া খরনা ইসলামিয়া মাদরাসার জামে মসজিদে পটিয়া ও চন্দনাইশ উপজেলার তাবলীগের মারকায এর উদ্বোধনী অনু্ষ্ঠানে এসব কথা বলেন।

মাওলানা বোখারী আরো বলেন, বিশ্বব্যাপী ইসলামের প্রচার-প্রসারের লক্ষ্যে একটি উসূলের ভিত্তিতে মাওলানা ইলিয়াছ রহ.এই মেহনত চালু করেছিলেন। সুতরাং তাবলীগ ছয় উসূলের ভিত্তিতে পরিচালিত না হয়ে মনগড়াভাবে পরিচালিত হলে নিঃসন্দেহে পথ হারাবে।

অনু্ষ্ঠানে আরো বয়ান করেন হাটহাজারী মাদরাসার সিনিয়র মুহাদ্দিস ও লাভলেইন মারকায এর শুরা সদস্য মাওলানা মুফতি জসিম উদ্দিন,জামিয়া আল ইমলামিয়া পটিয়ার সহকারী মুহতামিম মাওলানা আবু তাহের নদভী।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন চন্দনাইশ দোহাজারী আজিজিয়া কাসেমুল উলুম মাদরাসার নির্বাহী মুহতামিম মাওলানা আবদুন নুর,চন্দনাইশ মুরাদাবাদ আজিজিয়া মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা হাফেজ তাহের আজিজী,খরনা ইসলামিয়া মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা মোস্তাক আহমদ প্রমুখ।

উল্লেখ্য,দক্ষিণ চট্টলায় দাওয়াতে তাবলীগের কাজকে আরো জোরদার করা ও মানুষের কর্ণকুহরে ইসলামের দাওয়াত পৌঁছে দেওয়ার লক্ষ্যে সাতকানিয়া কেরানীহাটে ও খরনায় দু’টি মারকায বৃদ্ধি করা হয়।


ইনসাফ সাংবাদিকতা কোর্স

ইনসাফ সাংবাদিকতা কোর্সদেশের প্রথম ইসলামী ঘরানার অনলাইন পত্রিকা ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকমের আয়োজনে শুরু হতে যাচ্ছে স্বল্পমেয়াদী সাংবাদিকতা কোর্স।অংশগ্রহণ করতে যোগাযোগ করুন এই নাম্বারে-০১৭১৯৫৬৪৬১৬এছাড়াও সরাসরি আসতে পারেন ইনসাফ কার্যালয়ে।ঠিকানা – ৬০/এ পুরানা পল্টন ঢাকা ১০০০।

Posted by insaf24.com on Monday, October 29, 2018


‘নোয়াখালীতে গণধর্ষণের সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে’
 জানুয়ারি ০৪, ২০১৯
ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | ডেস্ক রিপোর্ট


ফাইল ছবি

বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন প্রধান আমীরে শরীয়ত আল্লামা শাহ্‌ আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী নোয়াখালীর সুবর্ণচরের একটি গ্রামে এক গৃহবধুকে নির্যাতন ও গণধর্ষণের লোমহর্ষক ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে অবিলম্বে অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

গণমাধ্যমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে তিনি আরো বলেন, এই ঘটনা প্রমাণ করে দেশে নারী-পুরুষসহ কোন নাগরিকেরই ইজ্জত-সম্ভ্রম নিয়ে বেঁচে থাকার কোন পরিবেশ নেই। অপরাধী যে দলেরই হোক অবিলম্বে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আওতায় আনার দাবি জানান তিনি; অন্যথায় এঘটনাকে কেন্দ্র করে জনগণ মাঠে নামতে বাধ্য হবে । তখন দেশে অশান্তি সৃষ্টি হলে এর দায়িত্ব সরকারকেই নিতে হবে।

আল্লামা আতাউল্লাহ হাফেজ্জী বলেন, যে দেশের প্রধানমন্ত্রী নারীর ক্ষমতায়নের নামে দেশী-বিদেশী সম্মাননা পদক সংগ্রহ করেন। সে দেশে শত শত নারী ধর্ষণ ও নির্যাতনের সুষ্ঠু বিচার না হওয়া অত্যন্ত লজ্জাজনক। এ জন্যই ইসলামী হুকুমত ছাড়া কোন অপরাধের সুষ্ঠু ও ন্যায়বিচার জনগণ আশা করতে পারেনা।