অবশ্যই বিএনপি জনপ্রিয় দল : খালেদা জিয়া

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি


বিএনপি বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় দল উল্লেখ করে দলটির কারাবন্দি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া বলেছেন, ‘বিরোধী দল শুধু সংসদের ভেতরে থাকলেই হয় না, বাইরে থাকলেও হয়। আবার এখন দেখি, সরকারের সঙ্গে থেকেও বিরোধী দল হয়। যারা জনগণের জন্য কথা বলেন, তারাই বিরোধী দল।’

আজ রোববার পুরান ঢাকার পুরাতন কেন্দ্রীয় কারাগারের ভেতরে স্থাপিত ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৯ এর বিচারক শেখ হাফিজুর রহমানের আদালতে নাইকো দুর্নীতির মামলার আসামিদের অব্যাহতির আবেদনের শুনানিকালে খালেদা জিয়া এসব কথা বলেন।

মওদুদ আহমদ শুনানিতে বলেন, আওয়ামী লীগ সরকারই নাইকোর সঙ্গে চুক্তি করেছিল। আমরা শুধু ধারাবাহিকতা রক্ষা করেছি। যারা করেছে তারা আজ আসামির বাইরে। বলতে দ্বিধা নেই, আমরা এখন বিরোধী দলে তাই …।

মওদুদ আহমদের এই বক্তব্য শেষ হওয়ার আগেই তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা আইনজীবী রোবহান উদ্দিন তাকে বলেন, ‘আমরা তো এখন বিরোধী দলেও নেই।’

তখন মওদুদ আহমদ বিচারকের উদ্দেশে বলেন, ‘মাই লর্ড, আমরা তো এখন কোথাও নেই।’

ওই সময় হুইল চেয়ারে বসে থাকা খালেদা জিয়া বলে ওঠেন, ‘বিরোধী দল শুধু পার্লামেন্টের ভেতরে থাকলেই হয় না, বাইরে থাকলেও হয়। আবার এখন দেখি, বিরোধী দল সরকারের সঙ্গে থেকেও হয়। যারা জনগণের জন্য কথা বলেন, তারাই বিরোধী দল। যে অবস্থাতেই থাকুক, বিএনপি সবচাইতে জনপ্রিয় দল।’

তখন দুদকের প্রসিকিউটর মোশাররফ হোসেন কাজল বলেন, ‘ঘরেও নেই, বাইরেও নেই, বিএনপি এমন দল।’ এ বক্তব্যের জবাবে খালেদা জিয়া বলেন, ‘অফকোর্স বিএনপি জনপ্রিয় দল।’

শুনানির পর আগামী ২১ জানুয়ারি পরবর্তী শুনানির তারিখ ধার্য করেছে আদালত।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, কানাডীয় প্রতিষ্ঠান নাইকোর সঙ্গে অস্বচ্ছ চুক্তির মাধ্যমে রাষ্ট্রের আর্থিক ক্ষতিসাধন ও দুর্নীতির অভিযোগে খালেদা জিয়াসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ মাহবুবুল আলম সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে ২০০৭ সালের ৯ ডিসেম্বর তেজগাঁও থানায় মামলাটি করেন।

মামলা করার পরের বছর ৫ মে খালেদা জিয়াসহ ১১ জনের বিদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। পরে আসামিদের বিরদ্ধে রাষ্ট্রের প্রায় ১৩ হাজার ৭৭৭ কোটি টাকার আর্থিক ক্ষতির অভিযোগ আনা হয়।


ড. কামালের নেতৃত্বে নির্বাচনে যাওয়া বড় ভুল ছিল : বিএনপি’র ভাইস চেয়ারম্যান মেজর হাফিজ
জানুয়ারি ১৪, ২০১৯
ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি


ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বে নির্বাচনে যাওয়া বিএনপি’র জন্য একটা বড় ভুল ছিলো বলে মন্তব্য করেছেন দলটির ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমদের।

তিনি বলেন, জনগণের সাথে কোন সম্পর্ক নাই, যারা ভোটের রাজনীতি কখনো করেননি তারা এখন বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ নিয়ন্তারূপে কথাবার্তা বলছেন। বিএনপির মতো বড় দল যে তাদের দ্বারস্থ হয়েছে এটিকে আমি সঠিক বলে মনে করি না।

মেজর হাফিজ বলেন, আদর্শগত বিভেদ আছেই। সুতরাং আদর্শের ঐক্য না থাকলে তাদের সাথে জোট করেও খুব একটা সুবিধা হয় না। আমরা শুধু অন্যদেরকে নেতা বানিয়ে দিয়েছি। আমাদের বিএনপির অনেক সিনিয়র, যোগ্য, ক্যাপাবল নেতা আছেন। তাদেরকে নিয়েই আমরা এগিয়ে যেতে পারতাম।

আজ (১৪ জানুয়ারি) একটি বেসরকারি টেলিভিশনের সাথে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপিকে জোটগত রাজনীতির বৃত্ত থেকে বেরিয়ে আসার তাগিদ দিয়েছেন দলটির নীতিনির্ধারক পর্যায়ের এ নেতা বলেন, বিএনপির একা পথ চলাই ভালো বলে আমি মনে করি। বিএনপি যথেষ্ট শক্তিশালী দল। আমাদের কোনো জোটেরও প্রয়োজন নেই। শুধু শুধু নাম-গোত্রহীন, জনসমর্থনহীন লোকজনকে পাদপ্রদীপের আলোয় আনার কোনো প্রয়োজন নেই। বিএনপির নিজেরই এখন এগিয়ে চলা উচিৎ।

মেজর হাফিজ বলেন, আমাদেরও ভুল-ভ্রান্তি থাকতে পারে। সেটি নিয়ে আত্মসমালোচনা করে, জনগণকে সাথে নিয়ে, জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করেই আমাদের এগিয়ে যেতে হবে।