শতবর্ষী মির্জাপুর শাহী মসজিদ

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি


মির্জাপুর শাহী মসজিদ (ছবি: মির্জা মিকাইল আবরার)

মির্জাপুর শাহী মসজিদ পঞ্চগড় জেলার আটোয়ারী উপজেলায় অবস্থিত বাংলাদেশের অন্যতম প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন। এটি আটোয়ারী উপজেলার মির্জাপুর নামক গ্রামে অবস্থিত বলে এর নামকরণ করা হয়েছে মির্জাপুর শাহী মসজিদ ।

মসজিদটি ১৬৫৬ সালে নির্মাণ করা হয়েছে। তবে মসজিদটি কে নির্মাণ করেছেন এটি নিয়ে ঐতিহাসিক মতপার্থক্য রয়েছে। কেউ কেউ মনে করেন, মালিক উদ্দিন নামে মির্জাপুর গ্রামেরই এক ব্যক্তি মসজিদটি নির্মাণ করেন। এই মালিক উদ্দিন মির্জাপুর গ্রামও প্রতিষ্ঠা করেন বলে জনশ্রুতি রয়েছে। আবার কেউ কেউ মনে করেন, দোস্ত মোহাম্মদ নামে জনৈক ব্যক্তি মসজিদটির নির্মাণ কাজ শেষ করেন। তবে প্রত্নতত্ত্ববিদগণ ধারণা করেন, মুঘল শাসক শাহ সুজার শাসনামলে মসজিদটি নির্মাণ করা হয়েছিলো।

মির্জাপুর শাহী মসজিদটির দৈর্ঘ্য ৪০ ফুট ও প্রস্থ ২৫ ফুট। মসজিদটির সামনের দেওয়ালে চিত্রাঙ্কন ও বিভিন্ন কারুকার্য রয়েছে যেগুলো একটি অপরটি থেকে আলাদা। মসজিদটিতে একই সারিতে তিনটি গম্বুজ রয়েছে। প্রতিটি গম্বুজের কোণায় একটি করে মিনার রয়েছে। মসজিদটিতে ফারসি ভাষার একটি শিলালিপি রয়েছে যেটা থেকেই ধারণা করা হয় এটি মুঘল আমলে নির্মিত হয়েছিল। মসজিদের নির্মাণ শৈলীর নিপুনতা ও দৃষ্টিনন্দন কারুকার্য এখনও দর্শনার্থীদের আকৃষ্ট করে।

জানাযায়, ভূমিকম্পে মসজিদটির কিছু অংশ ভেঙ্গে যায় এবং ইরান থেকে মসজিদটি সংস্কারের জন্য লোক নিয়ে আসা হয়।

যাতায়াত: রাজধানী ঢাকা হতে ডে/নাইট কোচ যোগে সরাসরি আটোয়ারী উপজেলা বাস ষ্ট্যান্ড। আটোয়ারী থেকে বাসযোগে মির্জাপুর ৬ কিলোমিটার। মির্জাপুর হতে পূর্বদিকে রিক্সা/ভ্যানযোগে ১কিলোমিটার মির্জাপুর শাহী মসজিদ। রাজধানী ঢাকা’র কমলাপুর রেল ষ্টেশন হতে সরাসরি দিনাজপুর ষ্টেশন। অতঃপর দিনাজপুর হতে কিসমত (আটোয়ারী) রেল ষ্টেশন হয়ে বাস/রিক্সা/ভ্যানযোগে ৬কিলোমিটার আটোয়ারী উপজেলা। আটোয়ারী থেকে বাসযোগে মির্জাপুর ৬ কিলোমিটার। মির্জাপুর হতে পূর্বদিকে রিক্সা/ভ্যানযোগে ১ কিলোমিটার মির্জাপুর শাহী মসজিদ।


তথ্যসূত্র, উইকিপিডিয়া


ইনসাফ সাংবাদিকতা কোর্স

ইনসাফ সাংবাদিকতা কোর্সদেশের প্রথম ইসলামী ঘরানার অনলাইন পত্রিকা ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকমের আয়োজনে শুরু হতে যাচ্ছে স্বল্পমেয়াদী সাংবাদিকতা কোর্স।অংশগ্রহণ করতে যোগাযোগ করুন এই নাম্বারে-০১৭১৯৫৬৪৬১৬এছাড়াও সরাসরি আসতে পারেন ইনসাফ কার্যালয়ে।ঠিকানা – ৬০/এ পুরানা পল্টন ঢাকা ১০০০।

Posted by insaf24.com on Monday, October 29, 2018


ফ্রান্সে উসমানীয় স্থাপনায় ইউরোপের সর্ববৃহত মসজিদ নির্মাণ করছে তুরস্ক
ডিসেম্বর ২৪, ২০১৮
ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | বেলায়েত হুসাইন


উসমানী যুগের স্থাপনার আদলে ইউরোপের সর্ববৃহৎ মসজিদ নির্মানের কাজ শুরু করেছে তুরস্ক।

ফরাসী শহর স্টার্সবুর্গে ‘তুর্কি সোসাইটি’ নামক রাষ্ট্রীয় একটি সংস্থা নান্দনিক এই মসজিদটি নির্মানের দায়িত্ব গ্রহণ করেছে।

চলতি ববছরের অক্টোবরে কাজ শুরু হওয়া সুলতান আইয়ুব নামের ৫ হাজার মুসল্লি ধারণক্ষমতার এ মসজিদের নির্মান কাজ শেষ হতে সময় লাগবে প্রায় সাড়ে তিন বছর-সে হিসেবে মসজিদটি মুসল্লিদের জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত করতে অপেক্ষা করতে হবে ২০২২ সালের শুরু পর্যন্ত।

তুর্কি সোসাইটি জানিয়েছে, উসমানী শাসনামলীয় বহু নিদর্শন কৃত্রিমরূপে উপস্থাপন করা হবে মসজিদের অভ্যন্তরে এবং বাহিরের বিভিন্ন স্থানে-যা মুসল্লিদের স্মরণ করিয়ে দিবে গৌরবময় উসমানী খেলাফত আমলের হারানো সুখস্মৃতি।