বিশ্বজিৎ হত্যায় যাবজ্জীবনপ্রাপ্ত কিবরিয়ার জামিন স্থগিত

bissajeetপুরান ঢাকার দর্জি দোকানি বিশ্বজিৎ হত্যা মামলায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত এএইচএম কিবরিয়াকে দেয়া হাইকোর্টের জামিন স্থগিত করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

বৃহস্পতিবার প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার (এসকে) সিনহার নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

এই বেঞ্চের অন্য সদস্যরা হলেন বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন, বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকী, বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার ও বিচারপতি বজলুর রহমান।

রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। আসামিপক্ষে অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন ও এম আমিনুদ্দিন।

গত ৩ ফেব্রুয়ারি হাইকোর্ট হাইকোর্ট কিবরিয়াকে জামিন দেন। জামিন আদেশের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ চেম্বার জজে আবেদন করলে ১৪ ফেব্রুয়ারি জামিন স্থগিত করে পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে পাঠান। বৃহস্পতিবার আপিল বিভাগ চেম্বার জজের দেয়া স্থগিতাদেশ বহাল রাখেন।

২০১৩ সালের ১৮ ডিসেম্বর বিচারিক আদালত বিশ্বজিৎ দাস হত্যা মামলার রায়ে আট জনকে ফাঁসি ও ১৩ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়া হয়। দণ্ডাদেশ প্রাপ্ত ২১ আসামির সবাই জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মী।

ফাঁসির দণ্ডাদেশ পাওয়া আট আসামি হলেন রফিকুল ইসলাম শাকিল, মাহফুজুর রহমান নাহিদ, এমদাদুল হক এমদাদ, জিএম রাশেদুজ্জামান শাওন, সাইফুল ইসলাম, কাইয়ুম মিঞা, রাজন তালুকদার ও মীর নূরে আলম লিমন।

যাবজ্জীবন কারাদণ্ড পেয়েছেন গোলাম মোস্তফা, এএইচএম কিবরিয়া, ইউনুস আলী, তারিক বিন জোহর তমাল, আলাউদ্দিন, ওবায়দুর কাদের তাহসিন, ইমরান হোসেন, আজিজুর রহমান, আল-আমিন, রফিকুল ইসলাম, মনিরুল হক পাভেল, কামরুল হাসান ও মোশাররফ হোসেন।

২০১২ সালের ৯ ডিসেম্বর বিএনপি নেতৃত্বাধীন ১৮ দলের অবরোধের মধ্যে পুরান ঢাকার বাহাদুর শাহ পার্কের কাছে বিশ্বজিৎকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যা করা হয়।


Notice: Undefined index: email in /home/insaf24cp/public_html/wp-content/plugins/simple-social-share/simple-social-share.php on line 74