পঞ্চগড়ে ইজতিমা নিষিদ্ধসহ কাদিয়ানীদেরকে রাষ্ট্রীয়ভাবে অমুসলিম ঘোষণা করতে হবে: জমিয়ত

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | ডেস্ক রিপোর্ট


পঞ্চগড়ে আহুত কাদিয়ানীদের ইজতিমা নিষিদ্ধকরণসহ অবিলম্বে সরকারীভাবে কাদিয়ানীদেরকে ‘অমুসলিম’ ঘোষণার দাবি জানিয়েছে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ।

দলের সভাপতি আল্লামা আব্দুল মুমিন শায়েখে ইমামবাড়ি ও মহাসচিব আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী সোমবার (১১ফেব্রুয়ারি) গণমাধ্যমে দেওয়া এক যৌথ বিবৃতিতে এই দাবি জানিয়ে বলেন, মির্জা গোলাম আহমদ কাদিয়ানী খতমে নবুওয়াত অস্বীকার করে নিজেকে মিথ্যা নবরি দাবি করে। তাই তার অনুসারীরা নিজেদেরকে মুসলিম দাবি করার কোনই সুযোগ নেই। কারণ, খতমে নবুওয়াতের উপর দৃঢ় বিশ্বাসস্থাপন করা মুসলমান জন্য আবশ্যকীয় বিধান। হযরত মুহাম্মদ (সা.)কে ‘শেষ নবী’ হিসেবে বিশ্বাস করা তথা খতমে নবুওয়াতের উপর ঈমান আনা মুসলিম হওয়ার জন্য ‘ট্রেড মার্ক’ স্বরূপ।

যৌথ বিবৃতিতে জমিয়ত নেতৃদ্বয় আরো বলেন, কাদিয়ানীরা অমুসলিম পরিচিতি নিয়ে অন্যান্য সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মতো নাগরিক অধিকার ভোগ করাতে আমাদের কোন আপত্তি নেই। হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রীস্টানদের মতো তারাও অমুসলিম ঘোষিত হয়ে নাগরিক অধিকার ভোগ করুক। কিন্তু তারা অমুসলিম হওয়া সত্ত্বেও মুসলিম পরিচিতি ও ইসলামী পরিভাষা ব্যবহার করে স্বল্পশিক্ষিত ও সাধারণ মুসলমানদেরকে ধোঁকা দিয়ে ঈমানহারা করে যাবে, এটা মেনে নেওয়ার সুযোগ নেই। তাদের এমন প্রতারণা চলতে থাকলে দেশের কোটি কোটি নবীপ্রেমি তৌহিদী জনতা বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠতে পারে।

বিবৃতিতে তাঁরা আরো বলেন, কাদিয়ানী ইস্যুতে রাষ্ট্রের জন্য বিবাদ মীমাংসার সহজ এবং গঠনমূলক উপায় হলো, অবিলম্বে কাদিয়ানী সম্প্রদায়কে রাষ্ট্রীয়ভাবে ‘অমুসলিম সম্প্রদায়’ ঘোষণা দিয়ে তাদের ধোঁকা ও প্রতারণার পথ বন্ধ করে দেশের শান্তি-শৃঙ্খলা নিশ্চিত করা। সাথে সাথে কাদিয়ানীদের জন্য যে কোন ইসলামী পরিভাষা ব্যবহারও নিষিদ্ধ করতে হবে। কারণ, কাদিয়ানীরা মিথ্যাভাবে নিজেদেরকে মুসলিম দাবি ও ইসলামি পরিভাষা ব্যবহার করে একদিকে সাধারণ মুসলমানদেরকে ঈমানহারা করার মিশন পরিচালনা করছে, অন্যদিকে দেশের বিদ্যমান সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করে দেশকে অশান্তির মুখে ঠেলে দিতে ষড়যন্ত্র করছে।



ইনসাফ সাংবাদিকতা কোর্স

ইনসাফ সাংবাদিকতা কোর্সদেশের প্রথম ইসলামী ঘরানার অনলাইন পত্রিকা ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকমের আয়োজনে শুরু হতে যাচ্ছে স্বল্পমেয়াদী সাংবাদিকতা কোর্স।অংশগ্রহণ করতে যোগাযোগ করুন এই নাম্বারে-০১৭১৯৫৬৪৬১৬এছাড়াও সরাসরি আসতে পারেন ইনসাফ কার্যালয়ে।ঠিকানা – ৬০/এ পুরানা পল্টন ঢাকা ১০০০।

Posted by insaf24.com on Monday, October 29, 2018


কাদিয়ানী ইস্যু; শুক্রবারের পরিবর্তে দেশব্যাপী বিক্ষোভ আগামী বুধবার
ফেব্রুয়ারি ১১, ২০১৯
ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি


মানবতার মুক্তির দূত মহানবী হযরত মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে শেষ নবী হিসেবে অস্বীকারকারী কাদিয়ানী সম্প্রদায়ের ঘোষিত কথিত জাতীয় ইজতেমা বন্ধের দাবিতে সারােদেশে বিক্ষোভ কর্মসূচীর ডাক দিয়েছেন দেশের শীর্ষ ওলামায়ে কেরাম।

আগামী বুধবার (১৩ ফেব্রুয়ারী) দেশব্যাপী এ বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন করা হবে বলে ইনসাফকে জানিয়েছেন আর্ন্তজাতিক মজলিসে তাহাফফুজে খতমে নবুওয়ত বাংলাদেশের মহাসচিব মাওলানা নূরুল ইসলাম।

তিনি বলেন, গতকাল (১০ ফেব্রুয়ারি) বিকাল ৩টায় জাতীয় প্রেসক্লাবে পঞ্চগড় জেলায় আগামী ২২,২৩,২৪ ফেব্রুয়ারি জাতীয় ইজতেমা নামক দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলমানের ঈমান আকীদা বিধ্বংসী অনুষ্ঠান আয়োজনের প্রতিবাদ ও অনতিবিলম্বে তা বন্ধের দাবিতে আর্ন্তজাতিক মজলিসে তাহাফফুজে খতমে নবুওয়ত বাংলাদেশের উদ্যোগে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলন থেকে আমরা আগামী শুক্রবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) দেশব্যাপী এ বিক্ষোভ পালন করা হবে বলে ঘোষণা দিয়ে ছিলাম। কিন্তু বিশ্ব ইজতেমার কারণে এ কর্মসূচীর তারিখ পরিবর্তন করতে হয়েছে। ইনশা আল্লাহ আগামী বুধবার (১৩ ফেব্রুয়ারী) দেশব্যাপী এ বিক্ষোভ কর্মসূচী পালন করা হবে।