জানুয়ারি ১৯, ২০১৭

জাতিসংঘের প্রস্তাব অনুযায়ী কাশ্মীরে গণভোটের আয়োজন করতে হবে

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

খেলাফত-মজলিস_11906খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরিষদের বৈঠকে কাশ্মীর ইস্যুতে ভারত-পাকিস্তানের মধ্যকার সম্প্রতি সামরিক উত্তেজনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে বলা হয়, দু’টি পারমানবিক শক্তিধর দেশের মধ্যে যুদ্ধ হলে তা এ অঞ্চলের জন্যে মারাত্মক পরিস্থিতির সৃষ্টি করতে পারে। তাই কোনভাবেই এ অঞ্চলে যুদ্ধ কাম্য হতে পারে না। একই সাথে, ঐতিহাসিকভাবে কাশ্মীর স্বাধীন স্বত্ত্বা বিশিষ্ট একটি ভূখন্ড। কাশ্মরী জনগণের আত্মনিয়ন্ত্রণের অধিকার রয়েছে। অর্ধশতাব্দীরও বেশী সময় ধরে কাশ্মীরে হাজার হাজার মানুষের রক্ত ঝড়েছে, এখনো ঝড়ছে। কিন্তু অস্ত্রের মাধ্যমে কাশ্মীর সমস্যার সমাধান সম্ভব নয়। কাশ্মীরী জনগণের মতামতের ভিত্তিতেই কাশ্মীরের সমস্যা সমাধান সম্ভব। তাই কাশ্মীরে আর রক্ত না ঝড়িয়ে জাতিসংঘের ৪৭(১৯৪৮) নং প্রস্তাব অনুযায়ী অবিলম্বে কাশ্মীরে একটি গণভোটের আয়োজন করতে হবে।

বৈঠকে সিরিয়ার আলোপ্পতে যুদ্ধের কারণে আটকে পরা খাদ্য-পানিহীন ২০ লক্ষ মানুষের ভয়াবহ মানবিক বিপর্যয়ে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে অবিলম্বে যুদ্ধ বন্ধ করে সাধারণ মানুষকে ভয়াবহ পরিস্থিতি থেকে পরিত্রাণের জন্যে জাতিসংঘকে উদ্যোগ গ্রহনের আহবান জানান হয়।

বৈঠকে সম্প্রতি আমেরিকার প্রেসিডেন্ট প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়ে যে বক্তব্য প্রদান করেছেন তার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলা হয়, ইহুদীলবীর সমর্থন আদায়ে ট্রাম্প যে বক্তব্য দিয়েছেন তা অন্যায় ও ফিলিস্তিনী জনগণের ন্যায্য অধিকারের পরিপন্থি। জেরুজালেম হবে স্বাধীন ফিলিস্তিন রাষ্ট্রে রাজধানী। ভোট পাওয়ার জন্যে ট্রাম্পের দেয়া এ অনৈতিক বক্তব্য প্রত্যাহারের আহ্বান জানান হয়।

আজ সংগঠনের বিজয়নগরস্থ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে নায়েবে আমীর মাওলানা সৈয়দ মজবিুর রহমানের সভাপতিত্বে ও মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদেরের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন যুগ্মমহাসচিব অধ্যাপক এম কে জামান, শেখ গোলাম আসগর, সাংগঠনিক সম্পাদক মুহাম্মদ মুনতাসির আলী, ড. মোস্তাফিজুর রহমান ফয়সর, প্রশিক্ষণ সম্পাদক- অধ্যাপক আবদুল হালিম, মাওলানা নোমান মাযহারী, অর্থ ও আইন বিষয়ক সম্পাদক- এডভোকেট মো: মিজানুর রহমান, ওলামা বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা আহমদ আলী কাসেমী, অধ্যাপক কে এম আলম, অধ্যাপক মো: আবদুল জলিল, মাওলানা তোফাজ্জল হোসেন, মাওলানা আজিজুল হক প্রমুখ।