মার্চ ২৬, ২০১৭

গাজীপুরে হান্নান শাহ’র দাফন সম্পন্ন; জানাজায় মানুষের ঢল

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

5686552125_nবিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী সদ্য মরহুম ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) আসম হান্নান শাহের ৫ম এবং গাজীপুরে প্রথম নামাজে জানাজা শুক্রবার সকাল ৯টা ২০ মিনিটে গাজীপুরের ঐতিহাসিক রাজবাড়ি মাঠে অনুষ্ঠিত হয়েছে। জানাজায় অসংখ্য বিএনপি নেতাকর্মী ও এলাকার সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেন। প্রিয় নেতার লাশ দেখে অনেকেই কান্নায় ভেঙে পড়েন।

 

এর আগে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতাল (সি এম এইচ) এর হীম ঘর থেকে সকাল সাড়ে ৭ টায় গাজীপুরের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। সকাল ৯ টায় পৌঁছায় এবং সাড়ে ৯ টার দিকে গাজীপুরের ভাওয়াল রাজবাড়ী মাঠে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। পরে তাকে সাড়ে ১০ টায় কাপাসিয়া পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

বিকেল ৩ টায় তাকে ঘাঘাটিয়া সালাহ উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে তার জানাজা সম্পন্ন হয় এবং পরে গ্রামের নিজ বাড়িতে আরেকটি জানজা শেষে বাবা-মায়ের পাশে পারিবারিক কবরস্থানে তার দাফন সম্পন্ন হয়।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান, ভাইস-চেয়ারম্যান মো. শাজাহান, এম এ জেড জাহিদ হোসেন, যুগ্ম মহাসচিব খাইরুল কবির খোকন, জেলা বিএনপির সভাপতি ফজলুল হক মিলন, গাজীপুর মহা নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ।

এর আগে, মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় ভোর রাত ৩টা ৩৭ মিনিটে সিঙ্গাপুরে র‌্যাফেলস হার্ট সেন্টারে চিকিৎসাধীন অবস্থায় প্রিয়জনদের কাঁদিয়ে হান্নান শাহ চলে যান না ফেরার দেশে।

বুধবার সন্ধ্যা ৬টা ৮ মিনিটে মরহুমের মরদেহ হযরত শাহজালাল (রহ.) বিমানবন্দরে এসে পৌঁছায়। মরদেহের সঙ্গে ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্যপদ নজরুল ইসলাম খান এবং হান্নান শাহ’র ছোট ছেলে রিয়াজুল হান্নান।

দলের সর্বোচ্চ নীতি নির্ধারণী ফোরামের সদস্য এবং রাজনীতির রাজপথের প্রিয় সহকর্মীকে শেষ বারের মতো দেখা ও শ্রদ্ধা জানাতে বুধবার রাতেই হান্নান শাহ’র বাসায় ছুটে যান বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় মহাখালী ডিওএইচএস জামে মসজিদে প্রয়াত বিএনপির এই নেতার প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় অংশ নেন সাবেক রাষ্ট্রপতি ডা. এ কিউ এম বদরুদ্দোজা চৌধুরী, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, সাবেক নির্বাচন কমিশনার সাখাওয়াত হোসেন, এলডিপি’র সভাপতি কর্নেল (অব.) অলি আহমদ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রফেসর আনিসুজ্জামান প্রমুখ।

পরে হান্নান শাহ’র মরদেহ জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজা নিয়ে আসা হলে বেলা ১১ টায় সেখানে দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার ফজলে রাব্বী, চিফ হুইফ আ স ম ফিরোজ, বিরোধী দলীয় নেতার পক্ষে হুইফ নুরুল ইসলাম, খালেদা জিয়ার পক্ষে দলের ভাইস চেয়ারম্যান মেজর অব. হাফিজ উদ্দিন আহমেদ, শামসুজ্জামান দুদু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্ঠা আবুল খায়ের ভূঁইয়া, এলডিপির পক্ষে আব্দুল করিম আব্বাসী ও শাহাদাত হোসেন সেলিম প্রয়াত এই নেতার কফিনে পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন।

এর আগে জানাজায় বিএনপি নেতা লে. জেনারেল (অব.) মাহবুবুর রহমান, মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমেদ, চৌধুরী কামাল ইবনে ইফসুফ, জয়নাল আবেদীন, ২০ দলীয় জোট নেতা খন্দকার গোলাম মোর্তুজা, জেবেল রহমান গানি, কামরুজ্জামান, সাবেক হুইফ শহীদুল হক জামাল, সাবেক সাংসদ আশরাফ উদ্দিন নিজাম, জয়নাল আবেদীন (ভিপি জয়নাল) নাজিম উদ্দিন আলম, নাজিম উদ্দিন আহমেদ, আব্দুল মোমেন তালুকদার খোকা এবং আওয়ামী লীগ নেতা জাহিদ আহসান রাসেল প্রমুখ অংশ নেন।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার দিকে হান্নান শাহ’র মরদেহ বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে নিয়ে আসা হয়। এ সময় শত শত নেতাকর্মীর শেষ শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় সিক্ত হন হান্নান শাহ। বাদ যোহর দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে তৃতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয়।

এ সময় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, তরিকুল ইসলাম, এম কে আনোয়ার, মির্জা আব্বাস, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, ড. আব্দুল মঈন খান, কেন্দ্রীয় নেতা আব্দুল্লাহ আল নোমান, মোহাম্মদ শাহজাহান, আহমেদ আযম খান, ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, ব্যারিস্টার শাহজাহান ওমর. আব্দুস সালাম, খায়রুল কবির খোকন, ফজলুল হক মিলন, সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, হাবিবুর রহমান হাবিব, গোলাম আকবর খন্দকার, আব্দুস সালাম আজাদ, শহীদুল ইসলাম বাবুল, তাইফুল ইসলাম টিপু, মুনির হোসেন, বেলাল আহমেদ, আমিনুল ইসলাম, মারুফ হোসেন, রফিক শিকদার, ইউনুস মৃধা, রাজীব আহসান, আকরামুল হাসান মিন্টু প্রমুখ অংশ নেন।

এছাড়া ২০ দলীয় জোট নেতা সৈয়দ মুহাম্মদ ইব্রাহিম, শফিউল আলম প্রধান, মোস্তাফিজুর রহমান ইরান, ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, গোলাম মোস্তফা ভূঁইয়া প্রমুখ জানাজায় অংশ নেন।

মৃত্যুকালে বিএনপি নেতা হান্নান শাহ স্ত্রী নাহিদ হান্নান, দুই ছেলে শাহ রেজাউল হান্নান, রিয়াজুল হান্নান ও মেয়ে শারমিন হান্নান সুমিসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।