হৃদরোগের উপসর্গ, প্রতিরোধ ও প্রতিকার | insaf24.com

হৃদরোগের উপসর্গ, প্রতিরোধ ও প্রতিকার

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | লাইফস্টাইল ডেস্ক


বিশ্বে মানুষের মৃত্যুর সবচেয়ে বড় কারণগুলোর একটি হার্ট অ্যাটাক। বলা হয় বিশ্বে এক তৃতীয়াংশ মৃত্যুর জন্যে দায়ী হার্ট অ্যাটাক বা হৃদরোগ।

বাংলাদেশেও হার্ট অ্যাটাক বা হৃদরোগ আজকাল খুব সাধারণ ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে।

প্রায়শই হার্ট অ্যাটাকের প্রাথমিক উপসর্গগুলো আমাদের চোখ এড়িয়ে যায়।

অথচ চিকিৎসকেরা বলছেন, প্রাথমিক উপসর্গগুলো দেখে সাবধানতা অবলম্বন করতে পারলে ঝুঁকি কমানো সম্ভব।

ব্রিটিশ হার্ট ফাউন্ডেশনের এক গবেষণা বলছে, হৃদরোগের প্রাথমিক উপসর্গ খেয়াল না করলে তার ফলে কেবল মৃত্যু নয়, বেঁচে থাকলেও অনেক জটিলতা নিয়ে বাঁচতে হয়।

প্রাথমিক উপসর্গ:

* বুকে ব্যথা – চাপ চাপ ব্যথা, বুকের এক পাশে বা পুরো বুক জুড়ে ভারী ব্যথা

* শরীরের অন্য অংশে ব্যথা মনে হতে পারে ব্যথা শরীরে এক অংশ থেকে অংশে চলে যাচ্ছে, যেমন হতে পারে বুক থেকে হাতে ব্যথা হতে পারে। সাধারণত বাম হাতে ব্যথা হয়, কিন্তু দুই হাতেই ব্যথা হতে পারে

* মাথা ঘোরা বা ঝিমঝিম করা

* ঘাম হওয়া

* নিঃশ্বাস বন্ধ হয়ে আসা

* বমি ভাব হওয়া

* বুক ধড়ফড় করা বা বিনা কারণে অস্থির লাগা

* সর্দি বা কাশি হওয়া

বেশিরভাগ সময় বুকে ব্যথা খুবই তীব্র হয়, ফলে শরীরের অন্য অংশে ব্যথা অনেকে টের পান না।

আবার কারো ক্ষেত্রে হয়ত বুকে ব্যথা অনুভব করেননি, বিশেষ করে নারী, বয়স্ক মানুষ এবং যারা ডায়াবেটিসে ভুগছেন।

চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, নিঃশ্বাস বন্ধ হয়ে আসা, বুকে ব্যথা বা অজ্ঞান হয়ে যাবার মত ঘটনা সাধারণ হার্ট অ্যাটাকের এক মাস আগে হয়।

কেন হয় হৃদরোগ বা হার্ট অ্যাটাক?

আমাদের হৃদপিণ্ডে যে রক্ত প্রবাহিত হয়, তা হৃদযন্ত্রে রক্ত আসে ধমনী দিয়ে। সেটি যখন সরু হয়ে যায়, তখন নালীর ভেতরে রক্ত জমাট বেধে যেতে পারে।

ফলে নালীর ভেতর দিয়ে রক্ত প্রবাহ বন্ধ হয়ে যেতে পারে।

এতে হৃদযন্ত্রের পেশীগুলো দুর্বল হয়ে যায়, ফলে আর সে অক্সিজেন প্রবাহিত করতে পারে না।

হৃদপিণ্ডের ভেতর দিয়ে অক্সিজেন প্রবাহিত না হতে পারলেই হার্ট অ্যাটাক হয়।

হার্ট অ্যাটাক হলে কী করণীয়?

হার্ট অ্যাটাক হবার পর দ্রুত চিকিৎসকের শরণাপন্ন হতে হবে।

ব্রিটিশ হার্ট ফাউন্ডেশনের এক গবেষণায় বলা হয়েছে, চিকিৎসা পেতে এক ঘণ্টা দেরির জন্য মৃত্যুর হার বেড়ে যায় ১০ শতাংশ।

* তাৎক্ষণিক-ভাবে হাসপাতালে নিয়ে যেতে হবে

* হার্ট অ্যাটাকের পরপরই রোগীকে শক্ত জায়গায় হাত-পা ছড়িয়ে শুইয়ে দিন এবং গায়ের জামা-কাপড় ঢিলেঢালা করে দিন

* হার্ট অ্যাটাকের পর যদি আক্রান্ত ব্যক্তির শ্বাস-প্রশ্বাস বন্ধ হয়ে যায় তাহলে তাকে কৃত্রিম উপায়ে শ্বাস-প্রশ্বাস চালুর চেষ্টা করুন

* হার্ট অ্যাটাকের পর রোগীর যদি বমি আসে তাহলে তাকে একদিকে কাত করে দিন। যাতে সে সহজেই বমি করতে পারে। এতে ফুসফুসের মতো অঙ্গে বমি ঢুকে পড়া থেকে হার্ট অ্যাটাকে আক্রান্ত ব্যক্তি রক্ষা পাবেন।

কিভাবে ঠেকানো যাবে হার্ট অ্যাটাক?

* খাবার ও জীবনযাপনে পরিবর্তন আনতে হবে, নিয়মিত হাঁটা-চলা ও ব্যায়াম করতে হবে, সক্রিয় থাকতে হবে

* ডায়াবেটিস ও উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে হবে

* নিজেকে চিন্তামুক্ত রাখতে হবে

* ধূমপান বন্ধ করতে হবে

* মাঝে মাঝে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে


উৎস, বিবিসি



ইনসাফ সাংবাদিকতা কোর্স

ইনসাফ সাংবাদিকতা কোর্সদেশের প্রথম ইসলামী ঘরানার অনলাইন পত্রিকা ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকমের আয়োজনে শুরু হতে যাচ্ছে স্বল্পমেয়াদী সাংবাদিকতা কোর্স।অংশগ্রহণ করতে যোগাযোগ করুন এই নাম্বারে-০১৭১৯৫৬৪৬১৬এছাড়াও সরাসরি আসতে পারেন ইনসাফ কার্যালয়ে।ঠিকানা – ৬০/এ পুরানা পল্টন ঢাকা ১০০০।

Posted by insaf24.com on Monday, October 29, 2018


ইনসাফ সাংবাদিকতা কোর্সে অংশগ্রহণকারীদের সনদ প্রদান
ফেব্রুয়ারি ১৯, ২০১৯
ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি



দেশের প্রথম ইসলামী ঘরানার অনলাইন পত্রিকা ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকমের আয়োজনে ‘ইনসাফ সাংবাদিকতা কোর্স’এর প্রথম সেমিস্টারে অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের সনদ প্রদান করা হয়েছে।

সোমবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) রাজধানীর ফকিরাপুলে অবস্থিত হোটেল রাহমানিয়া ইন্টারন্যাশনালে এক আড়ম্বরপূর্ণ অনুষ্ঠানে তাদের সনদ প্রদান করা হয়।

ইনসাফের সম্পাদক ও প্রকাশক এবং ইনসাফ সাংবাদিকতা কোর্সের প্রধান পরিচালক সাইয়েদ মাহফুজ খন্দকারের সভাপতিত্বে সনদ প্রদান অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, মাসিক আদর্শ নারীর সম্পাদক মুফতী আবুল হাসান শামসাবাদী, সাহিত্যিক মাওলানা মুহাম্মাদ যাইনুল আবেদিন, ইনসাফের উপদেষ্টা সম্পাদক মুসা বিন ইজহার চৌধুরী, ইনসাফের পরিচালনা পর্ষদের সদস্য মিডিয়া ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মাওলানা মুহাম্মাদ সালাহউদ্দীন জাহাঙ্গীর, মুফতী হাবিবুল্লাহ মিসবাহ, মুফতী নেয়ামত উল্লাহ আমীন, মুফতী মামুন আবদুল্লাহ কাসেমী প্রমুখ।

২ শতাধিক শিক্ষার্থী থেকে প্রাথমিক বাচাইয়ের পর মাত্র ১৫ জন ‘ইনসাফ সাংবাদিকতা কোর্স’এর প্রথম সেমিস্টারে অংশগ্রহণের সুযোগ পান। কোর্সে অংশগ্রহণ করা ১৫ জন থেকে প্রথম সেমিস্টারের সমাপনি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হওয়ায় ৯ জনকে সনদ প্রদান করা হয়।