মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায় শহীদ হলেন সিলেটের হুসনে আরা পারভীন

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | নিজস্ব প্রতিনিধি



শুক্রবার (১৫ মার্চ) জুমআর নামাজের সময় নিউজিল্যান্ডে ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে খ্রিষ্টান সন্ত্রাসীর হামলায় শহীদ হয়েছেন হুসনে আরা পারভীন (৪২) নামে এক বাংলাদেশি নারী। তাঁর বাড়ি সিলেটে। স্বামীর সাথে তিনি নিউজিল্যান্ড থাকতেন।

পারভীনের স্বামী ফরিদ উদ্দিন আহমদের বাড়ি সিলেটের বিশ্বনাথ উপজেলার চক গ্রামে। আর হুসনে আরা পারভীন সিলেটের গোলাপগঞ্জের জাঙ্গাল হাটা গ্রামের মৃত নুরুদ্দিনের মেয়ে। ১৯৯৪ সালে বিয়ে হওয়া এই দম্পতির। তাঁদের এক কন্যা সন্তান রয়েছে।

সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় এখন পর্যন্ত ৪৯ শহীদ হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এরমধ্যে রয়েছেন তিনজন বাংলাদেশি।

শহীদ তিন বাংলাদেশির মধ্যে পারভীনই একমাত্র নারী।

হুসনে আরার ভাগ্নে মাহফুজ চৌধুরী জানান, ‘বিয়ের পর স্বামীর সাথে নিউজিল্যান্ড যান হুসনে আরা। তারা ক্রাইস্টচার্চ এলাকায় বসবাস করতেন। তার স্বামী ফরিদ উদ্দিন কিছুদিন দিন ধরে প্যারালাইজড অবস্থায় আছেন। হামলার প্রায় আধঘন্টা আগে আক্রান্ত মসজিদে অসুস্থ স্বামীকে রেখে পাশ্ববর্তী নারীদের জন্য মসজিদে যান হুসনে আরা।’

‘প্রায় ১৫ মিনিট পর পুরুষদের মসজিদের ভেতরে গুলির শব্দ শুনে পারভীন তার স্বামীকে বাঁচানোর জন্য বের হন। এসময় অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী তাকে গুলি করলে তিনি ঘটনাস্থলে মারা যান।’ যোগ করেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, ‘মসজিদের বাইরে গুলির শব্দ শোনার সঙ্গে সঙ্গে কয়েকজন মুসল্লি হুইল চেয়ারে করে ফরিদ উদ্দিনকে মসজিদ থেকে বের করে নেওয়ায় তিনি বেঁচে গেছেন।’

নিউ জিল্যান্ড পুলিশের পক্ষ থেকে পারভীনের শহীদ হওয়ার বিষয়টি নিউ জিল্যান্ডে অবস্থানকারী তার স্বজনদের জানানো হয়েছে।

তবে এখন পর্যন্ত পারভীনের লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়নি।