হকার উচ্ছেদের আগে তাদের পুনর্বাসন বেশি প্রয়োজন: মুফতি ফয়জুল করীম

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

2016-10-15_200740

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর সিনিয়র নায়েবে আমীর মুফতি সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম বলেছেন, হকাররা আজ সবচেয়ে বেশি নির্যাতিত, নিপীড়িত, শোষণ ও বঞ্চনার শিকার। হকারদের কোন প্রকার নোটিশ ছাড়াই উচ্ছেদ করা হয়, ফলে লাখ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতির সম্মুখীন হয় তারা। পুনর্বাসন ছাড়াই বার বার হকার্স উচ্ছেদ করে অত্যন্ত নির্মমতার দিকে ঠেলে দেয়া হয়।

আজ (শনিবার) সকাল ১০টায় পুরানা পল্টনস্থ আইএবি মিলনায়তনে হকার্স শ্রমিক আন্দোলন-এর উদ্যোগে কেন্দ্রীয় কাউন্সিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, হকার্স উচ্ছেদ করার আগে পুনর্বাসন বেশি জরুরী। কেননা একজন হকার্সদের উপর তার পুরো ফ্যামিলী নির্ভরশীল। কোন হকারই ফুটপাতে ব্যবসা করতে চায় না। একান্ত বাধ্য হয়েই রোদ-বৃষ্টির মাঝে কষ্ট করে ব্যবসা করে থাকেন। হকার্স নির্যাতন ও সন্ত্রাসমুক্ত পরিবেশে হকার্সদের ব্যবসার করার সুযোগ করে দেয়া রাষ্ট্রের দায়িত্ব। হকারদের শ্রম নিয়ে পুঁজিপতিরা আজ আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ হলেও হকার্সরা তাদের ন্যায্য অধিকার ফিরে পায়নি। ইসলাম সবচেয়ে শ্রমিক মর্যাদা দিয়েছে। ইসলামী শ্রমনীতি বাস্তবায়ন হলে শুধু মানুষ নয়, বনের পশুরা পর্যন্ত তাদের অধিকার ফিরে পাবে। তাই তিনি সকলস্তরের হকার্স শ্রমিকদের ইসলামী শ্রমনীতি বাস্তবায়নের ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহ্বান জানান।

হকার্স শ্রমিক আন্দোলনের সভাপতি মুহাম্মদ ইমাম হোসেন ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদজাকির হোসেনের পরিচালনায় এতে প্রধান আলোচক ছিলেন ইসলামী আন্দোলনের রাজনৈতিক উপদেষ্টা ও ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি মুহাম্মদ আশরাফ আলী আকন। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলনের যুগ্ম মহাসচিব অধ্যাপক মাওলানা এটিএম হেমায়েত উদ্দিন, শ্রমিক আন্দোলনের সহ-সভাপতি মুহা. হারুন অর রশিদ, মুহাম্মদ আব্দুল মান্নান, মুহাম্মদ মহসিন, মুহাম্মদ শিমুল, মুহাম্মদ সোহেল, মুহাম্মদ শামসুল হক, মুহাম্মদ হযরত আলী মোল্লা, মুহাম্মদ জাফর উল্লাহ, তৌহিদুল ইসলাম প্রমুখ। এছাড়াও হকার্স শ্রমিক আন্দোলন ও ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন-এর কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।