আবারো মহানবীকে (সা:) কটুক্তি; আলেম উলামার হুশিয়ারী

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

গত কয়েকদিন থেকে ‘উত্তম কুমার দাস’ ফেসবুক আইডি থেকে ইসলাম, মহানবী, হজরে আসওয়াদসহ ইসলামের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কটুক্তি-বিদ্বেষ ও উস্কানীমূলক লেখা প্রচার করা হচ্ছিল। সম্প্রতি মৌলভীবাজার শহরতলির গোমড়া এলাকার শ্রী কালিপদ দাসের ছেলে শ্রী মিল্টন দাস লেখাটি শেয়ার করে। বিষয়টি এলাকায় প্রচার হলে স্থানীয় জনতা উত্তেজিত হয়ে উঠলে স্থানীয় চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যের মাধ্যমে মিল্টন দাসকে থানায় হস্তান্তর করলে পুলিশ তাকে জেল হাজতে পাঠায়।

এ ব্যপারে মডেল থানায় আইসিটি আইনে মামলা করা হয়েছে। পরে জগন্নাথপুর গ্রামের মাওলানা ফারুক আহমদ খান বাদি হয়ে মৌলভীবাজার মডেল থানায় মিল্টন দাস ও অজ্ঞাত উত্তম কুমার দাসকে আসামী করে আইসিটি আইনে মামলা (নং-১১) করেন।

এ নিয়ে জেলার শীর্ষ আলেম, ধর্মপ্রাণ তাওহিদী জনতা ক্ষোভের আগুনে জ্বলছেন। গোমড়া, জগন্নাথপুর, সুলতানপুরসহ বিভিন্ন মসজিদ-মাদরাসায় মিটিং, প্রতিবাদ করেন জেলার আলেম এবং মৌলভীবাজার ওলামা পরিষদের নেতৃবৃন্দ। এদিকে মৌলভীবাজারে ইসলাম ধর্ম ও মহানবীকে (সা:) নিয়ে ফেসবুকে কটুক্তি করায় শ্রী মিল্টন দাস ও উত্তম কুমার দাসের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানিয়েছেন জেলার শীর্ষ আলেমগণ। আজ বিকালে একটি প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে এদাবি জানানো হয়।

বরুণার মাদরাসার প্রিন্সিপাল ও শায়খুল হাদিস আল্লামা খলিলুর রহমান পীর সাহেব বরুণা, মৌলভীবাজার জেলা উলামা পরিষদের সভাপতি শায়খুল হাদিস আল্লামা আব্দুল বারী ধর্মপুরী, জামেয়া মাদানিয়া শেখবাড়ি মাদরাসার প্রিন্সিপাল শায়খুল হাদিস আল্লামা মুফতি রশিদুর রহমান ফারুক, শহরের সুলতানপুর জামে মসজিদেও খতিব শায়খুল হাদিস আল্লামা মুফতি শামছুজ্জোহা, রায়পুর টাইটেল মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা গিয়াস উদ্দীন, জামেয়া দ্বীনিয়ার প্রিন্সিপাল মাওলানা সৈয়দ মাসউদ আহমদ, জামেয়া আরাবিয়া টাইটেল মাদরাসার মুহতামিম মুফতি হাবিবুর রহমান, শহরের দারুল উলুম মাদরাসা মসজিদের খতিব মাওলানা মাওলানা মুজাহিদ, রাধানগর মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা আব্দুল মুগনী প্রমুখ।

জেলার শীর্ষ আলেম ও জেলা উলামা পরিষদের নেতৃবৃন্দ হুশিয়ার উচ্চারণ করে বলেন , অনতিবিলম্বে কটুক্তিকারী মিল্টন ও উত্তম কুমার দাসকে গ্রেফতার ও সর্বোচ্চ  শাস্তি দিতে হবে নতুবা ধর্মপ্রাণ জনতাদের সাথে নিয়ে দুর্বার আন্দোলন গড়ে তোলা হবে।

আজ দুপুরে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে ওলামায়ে কেরামগণের এক প্রতিনিধি দল কটুক্তিকারীর সর্বোচ্চ শাস্তির দাবিতে স্মারকলিপি পৌছান।
কটুক্তিকারী মিলন দাসের ব্যাপারে মৌলভীবাজার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অকিল উদ্দীন আহমদ বলেন- ইসলাম ও মহানবীকে (সা.) কটুক্তিকারী মিল্টন দাসেরবিরুদ্ধে মডেল থানায় আইসিটি আইনে মামলা করা হয়েছে এবং মামলার তদন্ত চলছে। একজন আসামীকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।