বিছানার সঙ্গে বেঁধে পালা করে মুসলিম নারীদের ধর্ষণ করেছে মিয়ানমারের সেনারা

রোহিঙ্গামিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গা মুসলমানদের ওপর অমানবিক নির্যাতন করছে সেনারা। মুসলিম পুরুষদের গুলি করে হত্যা করা হচ্ছে, আর নারীদের করা হচ্ছে পালাক্রমে  ধর্ষণ।

মিয়ানমার থেকে পালিয়ে আসা বিশ বছর বয়সী রোহিঙ্গা মুসলিম তরুণী হাবিবা জানিয়েছেন, বিছানার সঙ্গে বেঁধে তাদের এক এক করে সেনা এসে ধর্ষণ করেছে।

হাবিবার ছোট বোন সামিরার বয়স ১৮। মিয়ানমারের উদাং গ্রামে ছিল তাদের বাড়ি। সেখানে হানা দেয় সেনা জওয়ানরা। দুই বোনকে পালাক্রমে ধর্ষণের পর তাদের ঘরে আগুন দিয়ে চলে যায় সেনারা। এর আগেই তাদের বাবাকে হত্যা করা হয়।

শুধু হাবিবা বা সামিরাই নয়। এই দুই বোনের মতো প্রতিদিন আরো অনেক রোহিঙ্গা কিশোরী-যুবতী ধর্ষিত হচ্ছে। বাধা দেয়া হলে তাদের নৃশংসভাবে মেরে ফেলে চলে যাচ্ছে সেনারা। যাওয়ার সময় বাড়ি-ঘরে আগুন লাগিয়ে দিচ্ছে।

হাবিবা জানালো, পালিয়ে না এসে উপায়ও ছিল না। সেনারা চলে যাওয়ার আগে হুঁশিয়ারি দিয়েছিল এরপর আবার তাদের দেখতে পেলে খুন করা হবে। তারা যেন পালাতে বাধ্য হয় সেজন্যই তাদের বাড়িতে আগুন দেয়া হয়।