পর্ন সাইট বন্ধ ও প্রবেশকারীদের পরিচয় প্রকাশ করা হবে : তারানা হালিম

পর্ণ সাইট বন্ধ করার উদ্যোগ নিয়েছে ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়। দেশি পর্নো সাইটগুলো বন্ধ করা গেলেও ভিনদেশী পর্ণ সাইট বন্ধ করার ব্যাপারটি পরিষ্কার নিয়।

এমন অবস্থায় সাইটগুলো বন্ধের প্রাথমিক ধাপ হিসেবে বিদেশের পর্নো সাইটগুলোতে যারা ঢুকবে তাদের পরিচয় প্রকাশের উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম এ তথ্য জানিয়ে বলেছেন, ‘যেসব পেইজগুলো দেশের ভেতর জেনারেট হচ্ছে সেগুলো র্যা নডম বন্ধ করবে আইএসপিগুলো’।

তিনি বলেন ‘সব আইএসপিগুলোকে এ সাইটগুলো বন্ধ করতে হবে, কারণ কেউ যদি ব্লক না করে তাহলে তাদের কাস্টমার বেড়ে যাবে’।

বাংলাদেশের বাইরে থেকে প্রতিনিয়ত এই ধরনের অনেক ওয়েবসাইট তৈরি হচ্ছে বলে শতভাগ সফল হওয়া কঠিন উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘পর্নসাইটে যারা ঢোকেন তাদের চিহ্নিত করার পরিকল্পনা রয়েছে আমাদের। যে সাইটগুলো ইন্টারন্যাশনালি জেনারেট করা হচ্ছে ওইগুলো অ্যাকসেস করতে হলে এমন একটি ম্যাকানিজম করতে পারি যাতে ওইটা এক্সপোজড হয়’।

তিনি বলেছেন, ‘এক্সপোজড হওয়ার ভয়েও মানুষ ওইটা দেখবে না। এই জিনিসটা করার জন্য প্ল্যান করা হচ্ছে।
এ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব আনতে বলা হয়েছে, এটি আসার পর কার্যকর করা হবে।

তিনি বলেন, কমিটি কাজ করছে এবং গঠনের ১৫ দিনের মধ্যে পর্ন সাইটগুলোর তালিকা এবং কারিগরি প্রস্তাবনা ও সুপারিশ জমা দিবে।

অন্যদিকে, সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, তিনস্তর বিশিষ্ট এই প্রস্তাবনায়- তাৎক্ষণিক, অন্তর্বর্তীকালীন এবং চূড়ান্ত কর্ম-পরিকল্পনা থাকবে।