মার্চ ২৪, ২০১৭

থার্টি ফার্স্টে বার, ক্লাব, রেস্তোরাঁ বন্ধ রাখার নির্দেশ পুলিশ কমিশনারের

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

থার্টি ফার্স্ট নাইট খ্রিষ্টীয় বর্ষবরণ উপলক্ষে রাজধানীতে বিশেষ নিরাপত্তাব্যবস্থা জারি করেছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)।

ডিএমপি কমিশনার আসাদুজ্জামান মিয়া আজ বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, ঢাকা শহরে ৩১ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ছয়টা থেকে ১ জানুয়ারি ভোর পাঁচটা পর্যন্ত সব ধরনের বার, ক্লাব, রেস্তোরাঁ বন্ধ থাকবেরা

এছাড়াও তিনি জানান, সন্ধ্যা ছয়টার পরে সাধারণ মানুষ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রবেশ করতে পারবে না। তবে পরিচয়পত্র দিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারী ঢুকতে পারবে।

গুলশান, বনানী এলাকায় বিশেষ ব্যবস্থায় পাঁচ তারকা হোটেল খোলা থাকবে। রাত আটটার পর থেকে হাতিরঝিল, গুলশান, বনানীতে যাওয়ার রাস্তা বন্ধ থাকবে। তবে এসব এলাকায় স্টিকারযুক্ত গাড়ি বিশেষ কারণে ব্যাখ্যা দিয়ে ঢুকতে পারবে।

বনানী এলাকায় কয়েকটি পাঁচ তারকা হোটেল বিদেশিদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থায় খোলা থাকবে। আতশবাজি ও পটকা ফোটানো যাবে না।

যদি রেস্তোরাঁয় কেউ অনুষ্ঠান করতে চায় পুলিশের বিশেষ অনুমতি নিতে হবে। বাসার ভেতরে অনুষ্ঠান করতে হলে পুলিশকে জানালে বিশেষ নিরাপত্তা পাওয়া যাবে।

ওই দিন লাইসেন্সকৃত কোনো আগ্নেয়াস্ত্র সাধারণ মানুষ বহন করতে পারবে না।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘থার্টি ফার্স্ট উপলক্ষে ঢাকা নগরীকে নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে দেওয়া হবে। সারা শহরে নিরাপত্তা বাহিনীর ১০ হাজার  সদস্য দিয়ে এক নিরাপত্তা বলয় তৈরি করা হবে, যাতে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকবে।’

সংবাদ সম্মেলনে সিটিটিসির প্রধান মনিরুল ইসলাম, রমনা জোনের ডিসি মারুফ হোসেন সরদার, ট্রাফিক উত্তর ও দক্ষিণের ডিসিসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।