৫ জানুয়ারী ‘কালো দিবস’ পালন করুন : ন্যাপ

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারী ভোটারবিহীন একতরফা নির্বাচনের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ সরকার মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে হত্যা করেছে অভিমত প্রকাশ করে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ ৫জানুয়ারী সকল দেশপ্রেমিক ও গণতান্ত্রিক শক্তিকে ‘কালো দিবস’ পালনের জন্য আহ্বান জানান।

বুধবার গণমাধ্যেমে প্রেরিত এক বিবৃতিতে দলের চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া বলেছেন, যে গণতান্ত্রিক ও ভোটাধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য এক সাগরের রক্তের বিনিময়ে আমরা স্বাধীন বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠিত করেছি আওয়ামী লীগ বার বার সেই গণতান্ত্রিক চেতনাকে আঘাত করেছে। এখন দেশে মূল সংকট গণতন্ত্রের সংকট। এ সংকটের সৃষ্টি হয়েছে ৫ জানুয়ারি ২০১৪ সালের নির্বাচনে; যে নির্বাচনে মুক্তিযুদ্ধের চেতনার ওপর বিরাট আঘাত করা হয়েছে।

নেতৃদ্বয় বলেছেন, আওয়ামী লীগের কাছে গণতন্ত্র, মানবাধিকার, স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব কিছুই নিরাপদ নয়। আমরা কে কি করলাম এটি বিষয় নয়, ইতিহাসের ধারাবাহিকতার অনিবার্য পরিনতি থেকে স্বৈরশাসক আওয়ামী লীগের মুক্তি নাই। জনরোষের মুখে গণআন্দোলনের মধ্য দিয়েই ভোটার বিহীন নির্বাচনের মাধ্যমে ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত স্বৈরাচারের পতন হবে। বাংলাদেশ একটি পৈশাচিক হত্যার দেশে পরিণত হয়েছে। দেশ আজ এক চরম সংকটে পতিত হয়েছে। এই সংকট গণতন্ত্রের। এ সংকট থেকে বের হওয়ার জন্য অবাধ নিরপেক্ষ নির্বাচন দরকার, যেখানে সব দলের অংশগ্রহণ থাকবে। এর বাইরে গোঁজামিলের রাজনীতির সুযোগ নেই।

তারা বলেন, সরকারের গণবিরোধী অবস্থান ক্ষমতাকে দীর্ঘস্থায়ী করার অপরাজনীতি বাংলাদেশের জন্য অভিশাপ বয়ে আনছে। এ অবস্থা থেকে দ্রুত উত্তরণে সকল দলের অংশগ্রহনে অবাধ-সুষ্ঠু-নিরপেক্ষ নির্বাচনের কোন বিকল্প নাই। আগামী বাংলাদেশে একটি দেশপ্রেমিক সরকার প্রতিষ্ঠায় জাতীয় ঐক্য গড়ে তোলার বিকল্প নাই।

নেতৃদ্বয় বলেছেন, রক্ত দিয়ে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। এ গণতন্ত্রের প্রশ্নে কোনো আপস চলবে না। বহুদলীয় গণতন্ত্রের জন্যেই স্বাধীনতার সংগ্রাম। সুতরাং স্বাধীনতা আর মুক্তিযুদ্ধের চেতনা জনগণের গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠায় সংগ্রামের কোন বিকল্প নাই। অপশক্তির মদদে ভোটারবিহীন নির্বাচনের মাধ্যমে অধিষ্ঠিত সরকারের কাছে জাতি গণতন্ত্র আর আইনের শাসন প্রত্যাশা করে না। গণজাগরণ অথবা গণঅভ্যূথানের মাধ্যমেই চলমান অচল অবস্থা থেকে দেশকে মুক্তি দেয়ার কোন বিকল্প পথ খোলা নাই।