দয়া করে আমাকে একটি কার্ড দিন ! প্রতিবন্ধি ছায়েম আলীর দু:খ !

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার বংকিরা গ্রামের ছায়েম আলী জন্ম থেকেই বহুমাত্রিক প্রতিবন্ধি। বাবা মা বেচে থাকাবস্থায় তাদের সাথেই ছিলেন। বাবা মাহাতাব হোসেন সরদার ও মা আনোয়ারা খাতুন ইন্তেকাল করেছেন বহু বছর আগে। মাঠে শক্ত কাজ করতে পারেন না। সেই জন্য কামলা খাটার সুযোগ নেই। মাঠের ফসল কুড়িয়ে জীবীকা নির্বাহ তার।

বয়স বৃদ্ধির সাথে সাথে কাজের চাহিদাও কমে আসছে। গ্রামের মানুষ তাকে মেছের বলে ডাকেন। ঝিনাইদহ সদর উপজেলার বংকিরা গ্রামে তার বাড়ি। পৈত্রিক পেশা পালকী টানা। অন্যান্য ভাইয়েরা মাঠে কামলা খাটেন। কেওবা ভ্যান চালান। কিন্তু ছায়েম আলীর বেঁচে থাকার কোন পথ নেই।

মাুনষের কাছে চেয়ে চিন্তে খেয়ে আর অনুগ্রহে বেঁচে আছেন। প্রতিবিন্ধ হওয়ার কারণে কোন মেয়ে তার স্ত্রী হতে চায় নি। দুবেলা ভাত রান্না করে দেন ভাবি ও ভাতিজার স্ত্রীরা।

ছায়েম আলী বহুবার এলাকার মেম্বরের কাছে দারস্থ হয়েছেন। কিন্তু খুটোর জোর না থাকায় কেও তাকে প্রতিবন্ধি কার্ড করে দেন নি। তিনি জেলা প্রশাসক ও সমাজসেবার মহানুভব ব্যক্তিদের কাছে একটি প্রতিবন্ধি কার্ডের আবেদন রেখেছেন।