দাঁতের যত্ন নিবেন যেভাবে

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

রাস্তার ধারে বিক্রয় করা ১০-১৫ টাকা দামের ব্রাশ কিনে ভাবছেন টাকা বাঁচিয়ে ফেললেন। কিন্তু দাঁতের ক্ষতির কারণে যে আপনাকে বাজার বাজার টাকা খরচ করতে হবে তা কি ভেবেছেন? এই ব্রাশগুলোর ব্রিসল অনেক শক্ত থাকে যা দাঁতের উপরের এনামেলের ক্ষতি করে। তাই দাম দিয়ে হলেও ।ভালো মানের  ব্র্যান্ডের  নরম ব্রিসলের ব্রাশ ব্যববার করুন। মেনে চলুন আরো কিছু নিয়ম।

আস্তে আস্তে ব্রাশ করুন

অনেকে মনে করেন জোরে জোরে ব্রাশ করলে দাঁতের ময়লা ভালো করে পরিষ্কার হবে এবং বেশি দ্রুত পরিষ্কার হবে। আর এতেই ক্ষতিটা হয় বেশি। খুব বেশি জোরে ব্রাশ করতে গেলে দাঁতের এনামেল ভেঙ্গে যাবার ঝুঁকি থাকে।

দুই মিনিটে শেষ করুন

অনেকের ধারণা অনেকটা সময় ধরে ব্রাশ করলে দাঁত ভালো পরিষ্কার হবে। কিন্তু এটি সম্পূর্ণ ভুল  ধারণা। প্রতিটা জিনিসেরইিএকটি নির্দিষ্ট সময় রয়েছে। ২ মিনিটের বেশি দাঁত ব্রাশ করা দাঁতের জন্য ক্ষতিকর।

খাওয়ার ৩০ মিনিট পর ব্রাশ করুন

অনেক অতিরিক্ত সচেতন মানুষ দাঁতের সুরক্ষায় খাওয়ার পরপরই দাঁত ব্রাশ করে ফেলেন যা উল্টো দাঁতের উপকারতো দুরের কথা ক্ষতিই বেশি করে । খাওয়ার পরপর বিশেষ করে অ্যাসিডিক খাবার ও ফলমূল খাওয়ার পরপর দাঁত ব্রাশ করলে দাঁত ক্ষয় হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। খাওয়ার পরপর নয়, অন্তত ৩০ মিনিট কিংবা ১ ঘণ্টা পর দাঁত ব্রাশ করুন।

দাঁতের ক্ষয় রোধের জন্য যেমন সঠিক ব্রাশ প্রয়োজন ঠিক তেমনই প্রয়োজন সঠিক টুথপেস্টের। সঠিক উপাদানের টুথপেস্ট একটু বেশি দাম দেখে নাকিনে যেন তেন টুথপেস্ট দিয়ে দিনে দুবার ব্রাশ করেও দাঁত রক্ষা করতে পারবেন।