আদালত প্রাঙ্গন থেকে মূর্তি অপসারনে সরকারকে বাধ্য করা হবে: ইসলামী ছাত্রসমাজ

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

দেশের সর্বোচ্চ আদালত প্রাঙ্গন থেকে লেডি জাস্টিজ এর মূর্তি অপসারনে সরকারকে বাধ্য করা হবে। দেশের মানুষের চিন্তা-চেতনার বিরুদ্ধে এই মূর্তি মানুষকে শিরক বিদআতের দিকে ধাবিত করবে। তাই যে কোন মূল্যে দেশের ঈমানদার মানুষের উচিত এই লেডি জাস্টিজ এর মুর্তি অপসারনের জন্য রাজপথে নেমে আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়া।

১৯ জানুয়ারী (বৃহস্পতিবার) বিকাল ৪ টায় বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসমাজের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গেন্ডারিয়া থানায় অনুষ্ঠিত কর্মীসভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।

সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসমাজের সাবেক কেন্দ্রীয় মহাসচিব ও বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক আ ক ম আশরাফুল হক, বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রসমাজের কেন্দ্রীয় মহাসচিব হাফেজ মুহাম্মাদ নুরুজ্জামান, বাংলাদেশ নেজামে ইসলাম পার্টির কেন্দ্রীয় অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মুফতী আবদুল কাইয়ুম, দপ্তর সম্পাদক পীরজাদা সৈয়দ মোঃ আহসান, প্রচার সম্পাদক মাওলানা মমিনুল ইসলাম, ছাত্রসমাজের কেন্দ্রীয় নেতা মাহমুদ হাসান, মোঃ জাকারিয়া, মোঃ আঃ আজিজ, ছাত্রসমাজ যাত্রাবাড়ী থানার সভাপতি মাকসুদুর রহমান, সেক্রেটারী উবায়দুল্লাহ সহ প্রমুখ ছাত্র নেতৃবৃন্দ।

নেতৃবৃন্দ বলেন, ইসলামী ছাত্রসমাজ যে লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য নিয়ে প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল সেই লক্ষ্য বাস্তবানের জন্য প্রতিটি নেতা-কর্মীকে অক্লান্ত পরিশ্রম করতে হবে। এবং আগামী দিনে দেশ পরিচালনার জন্য যোগ্য নিজেকে যোগ্য হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। বাংলাদেশ নাস্তিক-মুরতাদদের শিকড় উপড়ে ফেলার জন্য মাওলানা আতহার আলী রহঃ এর চেতনায় উদ্ধুদ্দ হয়ে মাঠে ঝাঁপিয়ে পড়তে হবে। এবং দেশের যে কোন দূযোর্গ মুহুর্তে ছাত্রসমাজের ডাকে সাড়া দিয়ে দেশের ঈমানদার তওহীদি ছাত্র-জনতাকে সাথে নিয়ে স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্বস রক্ষার আন্দোলনে নিজেকে জান বাজী রাখতে হবে।
কর্মীসভায় সভাপতি হিসাবে মুহাইমিনকে, সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মাদ ওমর ফারুককে নির্বাচিত করা হয়।