স্টার জলসাসহ ভারতীয় সব চ্যানেল বন্ধ করতে হবে: ইসলামী আন্দোলন

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের ঢাকা জেলা সভাপতি আলহাজ্ব সৈয়দ আলী মোস্তফা বলেছেন, স্টার জলসাসহ ঈমান ও আমল বিধ্বংসী ভারতীয় সকল চ্যানেল বন্ধ করতে হবে। ভারতীয় চ্যানেলগুলো মা-বোনদের চরিত্র ধ্বংস করে দিচ্ছে। ভারতীয় চ্যানেলগুলো আমাদের তরুণ ও যুব সমাজর চরিত্র ধ্বংস করে দিয়ে নীতি ও নৈতিকতাহীন করে দিচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, মসজিদের নগরী ঢাকাকে মূর্তির নগরী হিসেবে পরিচিত করতে একটি নাস্তিক্যবাদী মহল উঠেপড়ে লেগেছে। বাঙ্গালী জাতিসত্ত্বা ও চেতনাবোধকে ধ্বংস করতে মূর্তিপূজারী বানাতে চায়। তিনি বলেন, পাঠ্য বইয়ে হিন্দু ও নাস্তিক্যবাদী বিতর্কিত বিষয় সংযোজনকারী আর এই মূর্তি সংস্কৃতির হোতারা একই সূত্রে গাঁথা। তারাই বার বার একের পর এক ষড়যন্ত্রমূলক কৃর্তি-কলাপ করে জনগণ ও সরকারকে বিভ্রান্ত করছে। অথচ বর্তমান সরকার তাবলীগের মারকাজ, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মত ইসলামী প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করলেও বর্তমান সরকার ইসলামবিরোধী মূর্তি প্রতিস্থাপন করে ঈমান বিধ্বংসী কাজে করে যাচ্ছে। অবিলম্বে সুপ্রিমকোর্ট প্রাঙ্গণের মূর্তি ভেঙ্গে দিতে হবে।

 

তিনি বলেন, বাংলাদেশের সংস্কৃতিতে মূর্তি বা ভাস্কর্য নেই। এটা ৯২ ভাগ মুসলমানেরর চিন্তাচেতনারও পরিপন্থি। দীর্ঘদিন পর্যন্ত সুপ্রিমকোর্টের ইতিহাসে মূর্তি ছিল না, হঠাৎ করে কে বা কারা মূর্তি সংস্কৃতির আমদানি করা হচ্ছে। ইসলামের ইতিহাসে মূর্তি নেই। বরং ইসলাম এসেছে মূর্তি ধ্বংস করতে। কাজেই পৌত্তলিকতার দিকে কারা আমাদেরকে নিয়ে যেতে চায়, ওই চিহ্নিত মহলটিকে খুঁজে বের করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দিতে হবে।

গতকাল বিকেলে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা জেলা শাখার উদ্যোগে পুরানা পল্টনস্থ আইএবি মিলনায়তনে মজলিসে আমেলার সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন। সেক্রেটারী আলহাজ্ব শাহাদাত হোসেনের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন জেলা সহ-সভাপতি আলহাজ্ব হানিফ মিয়া ও আলহাজ্ব হাফেজ জয়নুল আবেদীন, আব্দুর রাজ্জাক বেপারী, জয়েণ্ট সেক্রেটারী অধ্যাপক ডা. কামরুজ্জামান, সাংগঠনিক সম্পাদক, মুহা. হাসমত আলী, মাওলানা নূর হোসাইন, মুফতী আব্দুল করীম, মাওলানা ইলিয়াস হোসাইন, মাওলানা জহিরুল ইসলাম, মুফতী ইজহারুল ইসলাম, হাজী আব্দুল মালেক, ডা. দেলোয়ার হোসেন, টি এম মাহফুজুর রহমান প্রমুখ।