পরকীয়ার জেরে পানীয়র সাথে বিশাক্ত পদার্থ মিশিয়ে স্বামীকে হত্যা !

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

ঝিনাইদহের মহেশপুরে স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমের বলি শরিফুল ইসলাম। স্ত্রী শরিফুল ইসলামকে কোমল পানির সাথে বিশাক্ত পদার্থ খায়িয়ে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

এলাকাবাসী সুত্রে জানা গেছে, ঝিনাইদহ জেলার মহেশপুর উপজেলার পুরন্দপুর গ্রামের অলি মোহাম্মদের ছেলে শরিফুল ইসলাম (৩৫) এর সাথে জীবননগর থানার হাসদাহ গ্রামের সিদ্দিক মন্ডলের মেয়ে রোজিফা বেগম (৩০) এর ১০/১২ বছর আগে বিয়ে হয়। গত এক দেড় বছর ধরে শরিফুলের ব্যাবসায়ী পার্টনার একই গ্রামের আয়নাল সরদারের ছেলে জাহিদুল ইসলাম জাদুর সাথে পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়ে রোজিফা বেগম।

প্রেমিক-প্রেমিকা মিলে গত ২১শে জানুয়ারী কোমল পানির (সেভেন আপ) এর সাথে বিশাক্ত পদার্থ খাওয়ালে শরিফুল রাতে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে।প্রথমে তাকে জীবননগর হাসপাতালে পরে তাকে যশোর মেডিকেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঐ দিন রাতেই সে মারা গেলে স্ত্রী রোজিফা কৌশলে লাশ বাড়িতে নিয়ে চলে আসে। বিষয়টি পরিবারে সন্দেহ হলে শরিফুলের ভাই আক্কাস আলী বাদী হয়ে মহেশপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করে।

মহেশপুর থানার এস.আই মাসুদ ঘটনাস্থলে পৌছালে তার কাছে বাদীর জবান বন্দি অনুযায়ী মৃত্যর বিষটি সন্দেহ হলে সুরোতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়না তদন্তের জন্য ঝিনাইদহের মর্গে পাঠায়। স্থানীয় লোকজন জানায় রোজিফা ও জাদুর পরকীয়া প্রেমটা এখানে ওপেন সিক্রেট বিষয় ছিল। তারা ২জন মিলে কোমল পানির সাথে বিশাক্ত পদার্থ খাইয়ে ষড়যন্ত্র করে হত্যা করেছে বলে সকলের সন্দেহ।

স্থানিয় ইউপি সদেস্য মিজানুর রহমান মিজান বলেন, বিষয়টি তাদের কাছে সন্দেহ হলে পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় একটি অভিযোগ করা হয়েছে। স্থানিয় ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম সিরাজ বলেন, পরকীয়া প্রেমের বিষয়টি তারাও জানতে পেরেছেন।