হাইকোর্ট সামনের মূর্তি অপসারণের জন্য সরকারকে বাধ্য করতে হবে: আল্লামা কাসেমী

পরিচিতি সভায় হেফাজতে ইসলাম ঢাকা মহানগরীর আমীর আল্লামা নূর হুসাইন কাসেমী

হেফাজতে ইসলাম ঢাকা মহানগরীর আমীর আল্লামা নূর হুসাইন কাসেমী বলেছেন, হাইকোর্ট প্রাঙ্গনে স্থাপিত মূর্তি অপসারণের জন্য আন্দোলনের মাধ্যমে সরকারকে বাধ্য করতে হবে।

তিনি বলেন, দেশের মানুষের ন্যায়বিচার পাওয়ার সর্বোচ্চ স্থান সুপ্রীম কোর্ট-প্রাঙ্গণে কথিত ন্যায়ের প্রতীক নগ্ন-অশ্লীল দেবী থেমিসের মূর্তি স্থাপন হচ্ছে চরম ধৃষ্টতা এবং রাষ্ট্রধর্ম ইসলামের অবমাননা।

তিনি সকলের প্রতি আহবান জানিয়ে বলেন, আপনারা আলেম উলামাদের নেতৃত্বে হাইকোর্টের সামনে মূর্তি অপসারণের জন্য আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়ুন এবং এই আন্দোলোনের  মাধ্যমে মূর্তি অপসারণের জন্য সরকারকে বাধ্য করুন।

আজ সোমবার (৩০ ডিসেম্বর) বিকাল ৩ টায় কাকরাইল ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স মিলনায়তনে খেলাফত আন্দোলনের ২০১৭-১৮ সেশনের নতুন কমিটির পরিচিতি সভার ভাষনে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি হযরত হাফেজ্জী হুজুর রহ- এর আহবান তওবার রাজনীতিকে জাতির জন্য মহা নেয়ামত আখ্যায়িত করে বলেন, আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে এ আন্দোলনে শরীক হয়ে কাজ করলে একদিন অবশ্যই এ জমিনে নবী-রাসূলদের অনুসরণে ইসলামী হুকুমত কায়েম হবে ইনশাআল্লাহ।

সভায় বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলন প্রধান, আমীরে শরীয়ত হাফেজ মাওলানা শাহ আতাউল্লাহ ইবনে হাফেজ্জী হুজুরের সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, ইসলামী ঐক্যজোটের চেয়ারম্যান মাওলানা আব্দুল লতিফ নিজামী, মজলিস মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক, ঐক্য আন্দোলনের আমীর ড. মাওলানা ঈসা শাহেদী, মহাসচিব মাওলানা হাবিবুল্লাহ মিয়াজী, আলহাজ আনিসুর রহমান জিন্নাহ, জনাব রোকনুজ্জামান রোকন, হাজী জালালুদ্দীন বকুল, মাওলানা হাফেজ আবু তাহের, ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল হান্নান আল হাদী, মাওলানা সানাউল্লাহ, মাওলানা ও মাওলানা আশরাফুজ্জামান পাহাড়পুরী প্রমূখ।