অবিলম্বে সুপ্রীমকোর্টের প্রবেশদ্বার থেকে গ্রীক দেবীর মূর্তি অপসারণ করতে হবে

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের বলেছেন, দেশের সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের চেতনা, শিক্ষা, সংস্কৃতির বিরুদ্ধে নানামুখী ষড়যন্ত্র অব্যাহত রয়েছে। এ ষড়যন্ত্রের অংশ হিসবেই বাংলাদেশ সুপ্রীমকোর্ট প্রাঙ্গণে গ্রীক দেবী থেলিসের মূর্তি স্থাপন করা হয়েছে। পাঠ্যপুস্তক ও পাঠ্যসূচীতে নাস্তিক্যবাদী ধ্যানধারণা চাপিয়ে দেয়ার জন্যে একশ্রেনীর তথাকথিত বুদ্ধিজীবিরা অপচেষ্টা চালাচ্ছে। ৯২ ভাগ মুসলমানের দেশের সর্বোচ্চ বিচারলয়ের প্রবেশ দ্বারে গ্রীক দেবীর মূর্তি কোনভাবেই গ্রহনযোগ্য নয়। অবিলম্বে সুপ্রীমকোর্টের প্রবেশদ্বার থেকে গ্রীক দেবীর মূর্তি সরিয়ে নিতে হবে। পাঠ্যপুস্তক ও পাঠ্যসূচী নিয়ে নাস্তিক্যবাদী ষড়যন্ত্র বন্ধ করতে হবে।

গতকাল সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় নির্বাহী পরষেদের বৈঠকে তিনি এসব কথা বলেন।

মাওলানা সৈয়দ মজিবুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নায়েবে আমীর মাওলানা সাখাওয়াত হোসাইন, অধ্যাপক এমকে জামান, যুগ্মমহাসচিব মাওলানা মুহাম্মদ শফিক উদ্দিন, মুহাম্মদ মুনতাসির আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক ড. মোস্তাফিজুর রহমান ফয়সল, মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ শফিউল আলম, মাওলানা আহমদ আলী কাসেমী, বায়তুলমাল ও আইনবিষয়ক সম্পাদক এডভোকেট মো: মিজানুর রহমান, উলামাবিষয়ক সম্পাদক মাওলানা নোমান মাযহারী, অফিস ও প্রচার সম্পাদক অধ্যাপক মো: আবদুল জলিল, প্রকাশনা সম্পাদক অধ্যাপক কে এম আলম, শিল্পবিষয়ক সম্পাদক আমিনুর রহমান, সহকারী সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা তোফাজ্জল হোসনে মিয়াজী, ঢাকা মহানগরীর সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আজিজুল হক প্রমুখ।

বৈঠকে বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্ট প্রাঙ্গন থেকে গ্রীক দেবীর মূর্তি অপসারণের দাবীতে এবং পাঠ্যপুস্তক ও পাঠ্যসূচীর বিষয়ে নাস্তিক্যবাদী ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে আগামী ৩ ফেব্রুয়ারী শান্তিপূর্ণভাবে দেশব্যাপী প্রতিবাদ দিবসের কর্মসূচী বাস্তবায়নের আহ্বান জানান হয়।

ঢাকার কর্মসূচী: ৩ ফেব্রুয়ারী শুক্রবার বাদ জুম্মা বায়তুল মোকারর উত্তর গেট থেকে ঢাকা মহানগরী শাখার উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল অনুষ্ঠিত হবে।