গ্রীক দেবীর মূর্তি অপসারণে সুপ্রীম কোর্টের রেজিস্ট্রারকে রিপ্রেজেন্টেটিভ লেটার

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

সুপ্রীম কোর্ট প্রাঙ্গনে স্থাপিত গ্রীক দেবীর মূর্তি

গ্রীক দেবীর মূর্তি অপসারণে সুপ্রীম কোর্টের রেজিষ্ট্রারকে রিপ্রেজেন্টেটিভ লেটার পাঠানো হয়েছে। বিশ্ববার্তার সম্পাদক মুহম্মদ আরিফুর রহমান ও মাওলানা আবুল হাসান শেখ শরীয়তপুরী আজ সুপ্রীমকোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল বরাবর এ রিপ্রেজেন্টেটিভ লেটার পাঠান।

রিপ্রেজেন্টেটিভ লেটারে বলা হয়, সুপ্রীম কোর্টে সম্প্রতি ন্যায় বিচারের প্রতিক হিসাবে গ্রীক দেবীর মূর্তি স্থাপনে বাংলাদেশের আপামর জনগণ বিস্মিত হয়েছেন। এ মূর্তি স্থাপন সংবিধানের ১২ ও ২৩ অনুচ্ছেদের পরিপন্থি। ১৯৪৮ সালে এই কোর্ট স্থাপিত হয়। তখন থেকে সুপ্রীমকোর্টে ন্যায় বিচারের প্রতিক হিসেবে ছিল দাঁড়িপাল্লা। বিগত ৬৮ বছর ধরে কেউ এর বিরুদ্ধে কোন প্রতিবাদ করেনি। ৬৮ বছর পর হঠাৎ করে ন্যায় বিচারের প্রতিক হিসাবে দাঁড়িপাল্লার জায়গায় গ্রীক দেবীর মূর্তি স্থাপন করে কী ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করতে চাচ্ছে সেটা জনগণের কাছে বোধগম্য নয়। তাহলে কী বিগত ৬৮ বছর সুপ্রীম কোর্টে ন্যায় বিচার হয়নি?

আরো বলা হয়, সুপ্রীম কোর্টের পার্শ্বে জাতীয় ঈদগাহ ময়দান, সালাতে সালাম ফেরানোর সময় চোখে পড়ে গ্রীক দেবীর মূর্তি। মুসলমানগণ আল্লাহ পাকের একত্ববাদে বিশ্বাস করেন। মূর্তি একত্ববাদের সাথে সাংঘর্ষিক। দেশের সংখ্যা গরিষ্ঠ নাগরিক মুসলমান। এটা কিছুতেই মানতে পারছেন না তারা। অতএব অনতিবিলম্বে সুপ্রীম কোর্ট থেকে এ মূর্তি অপসারণ করা হউক।