ঈমান নিয়ে বেঁচে থাকতে হলে কওমী মাদরাসার বিকল্প নেই : আরশাদ মাদানী

জমিয়তে উলামায়ে হিন্দের প্রধান আওলাদে রাসুল সায়্যিদ আরশাদ মাদানী (ফাইল ছবি)

ঈমান আমল নিয়ে বেঁচে থাকতে হলে মাদারিসে কওমি মাদরাসার বিকল্প নেই বলে অভিমত ব্যক্ত করেছেন জমিয়তে উলামায়ে হিন্দের প্রধান আওলাদে রাসুল সায়্যিদ আরশাদ মাদানী।

তিনি বলেন, কওমী মাদরাসা হচ্ছে দেশ জাতি ও সমাজের অন্যায়-অনাচারের বিরুদ্ধে সহীহ আকিদা বিশ্বাসের খাটি মানুষ গড়ার কারখানা। এখানে মানুষ আল্লাহকে চিনে, রাসুলকে (সা.) চিনে। সুতরাং ঈমান আমল নিয়ে বেঁচে থাকতে হলে মাদারিসে কওমি মাদরাসার বিকল্প নেই।

আজ শুক্রবার (০৩ ফেব্রুয়ারি) হবিগঞ্জ উমেদনগর মাদরাসার দশ সালা দস্তারবন্দী আন্তর্জাতিক মহাসম্মেলনের দ্বিতীয় দিনের প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

তিনি তার দির্ঘ বক্তব্যে আরো বলেন, যাদের উপর শরীয়ত কর্তৃক বিভিন্ন ধরনের হুকুকাত আর্পিত হয়েছে যদি তা পালনে সংশ্লিষ্ট ব্যাক্তি সচেষ্ট না হন তাহলে তাদের জন্য রয়েছে পরকালে ভয়াবহ শাস্তি।

তিনি কোরআন হাদীসের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, আমাদের প্রত্যেকেরই জীবন যাপনের প্রতিটি পর্যায়ে একে অপরের প্রতি বিভিন্ন দায়িত্ব কর্তব্য রয়েছে। অনেকে নিজের অধিকার ও প্রাপ্য ষোলআনা নিয়ে অন্যের অধিকার ও প্রাপ্য আদায়ে টালবাহানা করেন। বিক্রেতা যদি ক্রেতার কাছ থেকে ষোলআনা দাম নিয়ে ওজনে কম বা নিম্নমানের মাল সরবরাহ করে, নেতা যদি জনগণ থেকে ষোলআনা অধিকার নিয়ে জনগণকে তাদের পুর্ণ প্রাপ্য না দেন।

এভাবেই একজন মানুষ অন্য মানুষ থেকে তার ষোলআনা প্রাপ্য-অধিকার নিয়ে অপরকে তার প্রাপ্য-অধিকার থেকে বঞ্চিত করে বা কম দেয়, তাহলে ঐ কম প্রদানকরীকে জাহান্নামের ওয়াইল নামক স্থানে নিক্ষেপ করা হবে।