ইমাম-মুয়াজ্জিনদের দাবি না মানলে পশ্চিমবঙ্গ ওয়াকফ বোর্ড ঘেরাওয়ের হুঁশিয়ারি

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম |

পশ্চিমবঙ্গে ইমাম-মুয়াজ্জিনদের ন্যায্য দাবি মানা না হলে আগামী ৮ মার্চ রাজ্য ওয়াকফ বোর্ড ঘেরাও করা হবে বলে হুঁশিয়ারি দেয়া হয়েছে। এ ব্যাপারে ওয়াকফ বোর্ডের চেয়ারম্যানকে আজ ২০ দিনের আল্টিমেটাম দিয়েছে বিভিন্ন ইমাম সংগঠনের যৌথ সমিতি।

ইমামদের অন্যতম প্রধান সংগঠক ও সারা বাংলা সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ কামরুজ্জামান আজ (সোমবার) সন্ধ্যায় রেডিও তেহরানকে বলেন, ‘আজ ওয়াকফ বোর্ডের চেয়ারম্যান অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতি আব্দুল গণির দফতরে বিভিন্ন দাবি-দাওয়ার ভিত্তিতে স্মারকলিপি দেয়া হয়েছে। কর্তৃপক্ষকে এ ব্যাপারে ২০ দিনের সময়সীমা বেঁধে দেয়া হয়েছে। অন্যথায় আগামী ৮ মার্চ রাজ্য ওয়াকফ বোর্ড ঘেরাও করা হবে।’

তিনি বলেন, ‘বিগত দুই মাস ধরে ওয়াকফ বোর্ড কোনো প্রতিশ্রুতি রক্ষা না করায় আমরা আজ ভারতসভা হলে রাজ্য ইমাম কনভেনশনের মাধ্যমে ওয়াকফ বোর্ডে বিভিন্ন দাবি জানিয়েছি।’

ইমাম সংগঠনের পক্ষ থেকে ওয়াকফ বোর্ডে দেয়া স্মারকলিপির দাবির মধ্যে- ইমামদের মাসিক ভাতা আড়াই হাজার এবং মুয়াজ্জিনদের ভাতা ছয় হাজার টাকা করা, ভাতাপ্রাপ্ত ইমাম-মুয়াজ্জিনদের নামের তালিকা ওয়াকফ বোর্ডের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা, ওয়াকফ সম্পত্তির অবৈধ হস্তান্তর বন্ধ ও  জবরদখল মুক্ত করাসহ ওয়াকফ কেলেঙ্কারি নিয়ে সিবিআই তদন্তের নির্দেশ দেয়া, ইমাম-মুয়াজ্জিনদের বিনামুল্যে চিকিৎসা সুবিধা প্রদান করা, নিজভূমি নিজগৃহ ও গীতাঞ্জলি প্রকল্পে আবাসনের ব্যবস্থা করা, ওয়াকফ বোর্ডের মাধ্যমে তালাকপ্রাপ্তা মহিলা ও বিধবাদের ভাতা চালু করা প্রভৃতি রয়েছে।

আজ কোলকাতার রাজপথে মিছিল সহকারে বিভিন্ন মসজিদের ইমামরা ওয়াকফ বোর্ডে জড়ো হন। এবং পরে ৮ সদস্যের প্রতিনিধিদল ওয়াকফ বোর্ডে বিভিন্ন দাবিতে স্মারকলিপি দেন।

পার্সটুডে