গ্রেনেডসহ ভারতীয় সেনা গ্রেফতার

জম্মু-কাশ্মিরের শ্রীনগর বিমানবন্দরে দুটি গ্রেনেডসহ সেনাবাহিনীর এক সদস্য গ্রেফতার হয়েছেন। গ্রেফতার হওয়া ওই সেনা সদস্যের নাম ভূপাল মুখিয়া। তিনি পশ্চিমবঙ্গের দার্জিলিংয়ের বাসিন্দা। আজ সোমবার সকালে ‘অ্যান্টি হাইজ্যাকিং স্কোয়াড’ তাকে গ্রেফতার করে।

ভূপাল মুখিয়া ১৭ জম্মু-কাশ্মির রাইফেলসের সদস্য। তিনি ভারত-পাক নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর উরি সেক্টরে মোতায়েন ছিলেন। তাকে গ্রেফতার করার পরে বাডগাম পুলিশের হাতে তুলে দেয়া হয়। ওই সেনা সদস্য বিমানে করে শ্রীনগর থেকে দিল্লি যাওয়ার চেষ্টা করছিলেন। বিমানবন্দরে চেকিংয়ের সময় তার ব্যাগ থেকে দুটি গ্রেনেড উদ্ধার হয়। প্রাথমিক তথ্যে প্রকাশ, দিল্লির কোনো এক ব্যক্তির কাছে ওই গ্রেনেড তুলে দেয়ার কথা ছিল ভূপাল মুখিয়ার।

তার দাবি, এক কর্মকর্তা তাকে ওই গ্রেনেড দিয়েছে কিন্তু পুলিশ তার কথা বিশ্বাস করছে না। এটি কোনো বড়সড় ষড়যন্ত্র কী না পুলিশ তা তদন্ত করে দেখছে। ওই সেনা সদস্যের বিশেষ চার্টার্ড বিমানে দিল্লিতে পৌঁছানোর কথা ছিল। বিমানটিতে সেনাবাহিনীর সদস্যরা দিল্লিতে আসছিলেন সেসময় গ্রেনেডসহ সেনা সদস্যকে গ্রেফতার করার ঘটনার মধ্যে বড় দুর্ঘটনা এড়ানো সম্ভব হয়েছে বলে সংশ্লিষ্টমহল মনে করছেন।

শ্রীনগর বিমানবন্দর দেশের সবচেয়ে স্পর্শকাতর বিমানবন্দর হওয়ায় এখানে নিরাপত্তা ব্যবস্থা সবসময় কঠোর থাকে। ওই সেনা সদস্যকে গ্রেনেডসহ এমন সময় গ্রেফতার করা হল যখন রোববার জম্মু-কাশ্মির সফর করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি এদিন সেখানে দেশের সবচেয়ে দীর্ঘ সুড়ঙ্গ পথ উদ্বোধন করেন।