মালয়েশিয়ায় কোরআন হেফজকে জাতীয় শিক্ষায় অর্ন্তভুক্ত করা হচ্ছে

jiob.transformed_913747201মালয়েশিয়ায় ন্যাশনাল হেফজুল কোরআন এসোসিয়েশন নামে হাফেজদের একটি অরাজনৈতিক সংগঠন যাত্রা শুরু করেছে।

রবিবার (২০ মার্চ) রাজধানী কুয়ালালামপুরে ফেডারেল মসজিদে অনুষ্ঠিত ন্যাশনাল হেফজুল কোরআন এসোসিয়েশনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকসহ প্রায় ২০ হাজার কোরআনের হাফেজ উপস্থিত ছিলেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী বলেন, ইসলামিক ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশনের সহযোগিতায় মালয়েশিয়ার সরকার কোরআন হেফজের প্রতি সাধারণ মানুষকে উৎসাহী করার জন্য ও কোরআন হেফজকে জাতীয় শিক্ষায় অর্ন্তভুক্ত করার জন্য কোরআন হেফজ জাতীয় নীতি প্রণয়নে কাজ করছে। এ ব্যাপারে মতামত দেওয়ার জন্য মালয়েশিয়ার বিভিন্ন মাদ্রাসা ও কোরআন হেফজ সেন্টার প্রধানদের প্রতি অনুরোধও জানিয়েছেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক আরও বলেন, ব্যক্তিগতভাবে আমি কোরআন হেফজ জাতীয় নীতি প্রণয়নের সঙ্গে জড়িত। বলতে পারেন, এটা আমার আকাঙ্খাও বটে।

উল্লেখ্য যে, মালয়েশিয়ার সরকার ১৯৬৬ সাল থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে কোরআন হেফজ প্রশিক্ষণ সেন্টার ও মাদ্রাসা নির্মাণ করেছে এবং এখনও এ ধারা চালু রয়েছে।

কোরআন প্রশিক্ষণ সেন্টার নির্মাণ এবং হাফেজদের সম্মানিত করার মধ্য দিয়ে মালয়েশিয়া ইসলামের সেবা করে আসছে। এটা তাদের ঐতিহ্যের অংশ বিশেষ।

ন্যাশনাল হেফজুল কোরআন এসোসিয়েশন গঠনের মাধ্যমে আরও একটি নতুন অধ্যায় শুরু হলো। নবগঠিত এই এসোসিয়েশন কোরআন হেফজ ও কোরআন শিক্ষার সম্প্রসারণে সহায়তা করবে।