ইনি দুনিয়ার সবচেয়ে প্রবীণ প্রাণী, বয়স…

_73558109_jonathan624যুক্তরাজ্যের সেন্ট হেলেনা দ্বীপে বসবাস করে দৈত্যাকৃতির একটি কচ্ছপ। ধারণা করা হচ্ছে এটিই বিশ্বের সবচাইতে বয়স্ক জীবিত প্রাণী।

কচ্ছপটির বয়স ১৮৪ বছর। নাম জোনাথান। তাকে প্রথমবারের মত গোসল করানো হচ্ছে ব্রিটিশ রাজপরিবারের সাথে সাক্ষাতের জন্য।

প্রায় দুইশত বছর বয়স্ক জোনাথানের পীষ্ঠদেশ বা খোলকে লুফা, নরম ব্রাশ এবং সার্জিকাল সাবান দিয়ে পরিষ্কার করা হচ্ছে।

দক্ষিণ আটলান্টিকের ব্রিটিশ দ্বীপ সেন্ট হেলেনের পশু চিকিৎসক ড. জো হলিন্স জোনাথানের খোলের প্রত্যেকটা অংশ খুব ভালোভাবে পরিষ্কার করছেন। যাতে কালো দাগ এবং পাখির মলমূত্রগুলো না থাকে। এ ফাঁকে কচ্ছপটি তার মনের আনন্দে ঘাস খেয়ে নিচ্ছে।

জোনাথান দৈর্ঘে ৪৫ ইঞ্চি এবং উচ্চতায় ২ ফুট। ১৯ শতকের শেষ দিকে সিসিলির গভর্নরের পক্ষ থেকে উপহার হিসেবে তাকে সেন্ট হেলেনায় নিয়ে আসা হয়। তখন তার বয়স ছিল ৫০ বছর।

জো হলিন্স বলেন, আমি বিশ্বাস করি জোনাথানের এটাই প্রথম গোসল। কারণ সেন্ট হেলেনের আগের রক্ষক জোনাথানের এতটা যত্ন নিত না বলেই মনে হয়।

‘আমরা তাকে ভালোভাবে ঘষামাজা করছি কারণ কিছুদিন পরেই রাজপরিবারের একজন সদস্য তাকে দেখতে আসবে। আমরা চাই তখন যেন তাকে খুব পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন দেখায়।’

‘তাকে এখন দেখলে অনেক পরিষ্কার দেখা যায় এবং সেও বিষয়টা খুব উপভোগ করছে।’

জো বলেন, ‘ আমি যখন তাকে গোসল করাই তখন স্থির হয়ে দাঁড়িয়ে থাকে। আমি জানি না সে তখন কাপুনির কারণে এমন স্থির থাকে না এটা ভাবে যে ‘যাক অবশেষে আমি প্রথম গোসল করার সুযোগ পেলাম।’

‘আশা করছি আবার গোসলের জন্য তাকে নতুন করে ১৮৫ বছর অপেক্ষা করতে হবে না।’

সেন্ট হেলেনা দ্বীপটি পরিচিতি রয়েছে আরো একটি কারণে। ফরাসী শাসক নেপলিয়নের নির্বাসন হয়েছিল এ দ্বীপেই। ১৮২১ সালে এই দ্বীপেই তিনি মারা যান।

সূত্র: দা টেলিগ্রাফ, ভাষান্তরে জ়ুবায়ের হুসাইন

https://youtu.be/1UygThNsPIc