স্কুলছাত্রীকে যৌন হয়রানি, ছাত্রলীগ সভাপতিসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে পরোয়ানা | insaf24.com

স্কুলছাত্রীকে যৌন হয়রানি, ছাত্রলীগ সভাপতিসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে পরোয়ানা

স্কুলছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগে সিলেটের শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জিবন চক্রবর্তী পার্থসহ তিন নেতার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছেন আদালত।

এ ঘটনা তদন্তে গঠিত বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটির প্রতিবেদন আমলে নিয়ে আজ রোববার এ পরোয়ানা জারি করেন সিলেট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে বিচারক মুহিতুল হক।

পার্থ ছাড়াও সমাজকর্ম বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র মাহমুদুল হাসান রুদ্র ও একই বর্ষের পরিসংখ্যান বিভাগের সাজ্জাদ ছাত্র রিয়াদের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। তারা দুইজনই পার্থর অনুসারী ছাত্রলীগ কর্মী।

১২ এপ্রিল ট্রাইব্যুনালে তিনজনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা আরও ৪-৫ জনকে আসামি করে মামলা করেন নির্যাতিত স্কুলছাত্রীর মা। তিনি অভিযোগ করেন, ৮ এপ্রিল শাবি শহীদ মিনারের সামনে তার মেয়েকে যৌন হয়রানি করা হয়।

মামলার পর বিচারক মুহিতুল হক বিচার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ দেন। দায়িত্ব পান সিনিয়র সহকারী জজ ও জেলা লিগ্যাল এইড কর্মকর্তা তাসলিমা শরমিন। তিনি ৪ মে তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেন। তদন্তে যৌন হয়রানিতে তিনজনের সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ পাওয়া যায়।

প্রতিবেদনে বলা হয়, আসামি রিয়াদ ওই ছাত্রীর প্রতি অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করেন ও সিগারেটের ধোয়া ছুড়েন। আসামি রুদ্র থাপ্পর মারেন ও অশ্লীল ভাষা ব্যবহার করেন। তারা বিশ্ববিদ্যালয় গোল চত্বরে সাক্ষী নবিউল দিপু ও সর্দার আব্বাসকে মারধরও করেন। অপর আসামি পার্থ আক্রান্ত ছাত্রীর সঙ্গে থাকা ফুফাতো ভাই আসিফ আলীকে মারধর করেন ও সাক্ষী জাহিদ হাসানের কাছে থাকা মোবাইলে ধারণকৃত ছবি মুছে দেন।

উল্লেখ্য, গত ৮ এপ্রিল শাবিতে সদ্য এসএসসি পরীক্ষা দেয়া এক ছাত্রী ঘুরতে গেলে ছাত্রলীগ সভাপতিসহ কয়েকজনের হাতে যৌন হয়রানির শিকার হন।