গল্প উৎপাদন বন্ধ হইতেছে না, এর পরের কাহিনীটা কি?

মুন্সী বিশ্বজিৎ


মুন্সী বিশ্বজিৎ

‘উচ্চতর প্রযুক্তির ব্যবহার’ এই সরকারের আমলে প্রায়শই গালভরা বুলি হিসাবে শুনা যায়। সরকারকে টিকায়া রাখতে বিরোধী মত দমনে এই উচ্চতর প্রযুক্তি নিশ্চয়ই কামে দ্যায়। সরকারের উপকারে লাগে…। কিন্তু একজন অপহৃত নাগরিক, যার গতিবিধি আইন প্রয়োগকারী সংস্থার লোকজন সকাল থিকাই নিখুঁত ভাবে মনিটর করতে পারতেছিলেন– অথচ বুঝা যাইতেছিল না, এই উচ্চতর প্রযুক্তির ব্যবহার কইরা ক্যান তারে উদ্ধার করার কোন কার্য্যকরি পদক্ষেপ নিতে পারতেছিলেন না…!! বেলা তিনটার দিকে রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পর্যায় থিকা নির্দেশ না আসা পর্য্যন্ত উনাদের এই উচ্চতর প্রযুক্তি, সম্ভবত কাজে কামে উৎসাহ পাইতেছিল না…!!

সরকারি কর্তাদের বাতচিত করতে ততো উচ্চ প্রযুক্তি যেহেতু লাগে না, ফলে উচ্চতর কর্মকর্তাদের একটার পর একটা বয়ান আসতেইছিল। উৎসাহী পুলিশের কর্তার জবানে অপহৃত ব্যক্তি হয়া উঠছিলেন শখের ভ্রমন পিপাসু পর্যটক। ঢাকা থিকা উনি খুলনা আসছিলেন ঘুরতে, এখন আবার হোটেলে খাইয়া, বাসে উইঠা ঢাকা ফিরত যাইতেছিলেন। কিন্তু আইন প্রয়োগকারী সংস্থার লোকজনের চক্ষে কি ধুলা দেওন যায়…? উনারা ঠিকই ফরহাদ মজহারকে উদ্ধার কইরা ফেলছেন। অথচ ঢাকা থিকা একের পর এক মহাসড়ক দিয়া নদী পার হয়া মাইক্রোবাস কিভাবে খুলনা পর্যন্ত্য জার্নি করলো, সেই ঘটনার কোন ব্যখ্যা পাওয়া গেল না। এমন কি সেই মাইক্রোবাস উদ্ধার হইছে বইলা খবরও আসলো– অথচ সেই গাড়ী, তার ড্রাইভার কোন কিছুর হদিশ উদ্ধারে পুলিশের উৎসাহ দেখা যাইতেছে না। এই সব ঘটনার কোন আপডেটও পাওয়া গেল না।

তবু সরকারী কর্তাদের একের পর এক গল্প বানানির প্রজেক্ট পুরাদমে চালু রইছে।
গল্প উৎপাদন বন্ধ হইতেছে না। এইবার আইজিপি সাব মাঠে নামছেন নতুন আর এক কাহিনী নিয়া। ইত্তেফাক মারফত নতুন গল্প জানাইতেছেন, এক নারী চরিত্রের ইনক্লুড কইরা–।

কাহিনীর ভিতর একের পর এক টুইষ্ট… স্ক্রিপ্টের পরে স্ক্রিপ্ট। শুধু বুঝা যাইতেছে না, ঘটনার প্রথম ঘণ্টা থিকা আজকের দিন পর্যন্ত্য উনারা কাকে আড়াল করতে চাইতেছেন। ক্রাইম একটা হইছে, ভিকটিমও একজন আছেন– অথচ উচ্চতর কর্মকর্তারা নিশ্চিত ভাবে জানতেছেন– এই ক্রাইম সিনের ভিতরে থাকা কারে কারে এই তদন্ত থিকা বাইরে রাখতে হইবো।

আর কারে কারে এমন কি টাচও করা যাইবো না।

প্রশ্ন হইতেছে– এর পরের কাহিনীটা কি…??


ফেসবুক থেকে


Notice: Undefined index: email in /home/insaf24cp/public_html/wp-content/plugins/simple-social-share/simple-social-share.php on line 74