কাশ্মিরে শাবির শাহ’র ঘনিষ্ঠ আসলাম ওয়ানি গ্রেফতার

জম্মু-কাশ্মিরের ডেমোক্রেটিক ফ্রিডম পার্টির প্রেসিডেন্ট শাবির শাহ

জম্মু-কাশ্মিরের ডেমোক্রেটিক ফ্রিডম পার্টির প্রেসিডেন্ট শাবির শাহ’র ঘনিষ্ঠ আসলাম ওয়ানিকে গ্রেফতার করেছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট বা ইডি। আজ (রোববার) তাকে শ্রীনগর থেকে গ্রেফতার করা হয়।

আসলাম ওয়ানিকে সন্ত্রাসে অর্থায়ন করার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য দিল্লি আনা হচ্ছে।

২০০৫ সালে দিল্লি পুলিশের স্পেশাল সেল আসলাম ওয়ানিকে গ্রেফতার করেছিল। তারপর থেকে তিনি জামিনে ছিলেন। সেসময় তার কাছ থেকে ৬৩ লাখ টাকা ও অস্ত্র উদ্ধার হয়েছিল।

পুলিশের দাবি, জেরায় আসলাম ওয়ানি স্বীকার করেছিলেন, তিনি মধ্যপ্রাচ্য থেকে মানি লন্ডারিংয়ের মাধ্যমে পাওয়া ৫০ লাখ টাকা শাবির শাহকে এবং ১০ লাখ টাকা শ্রীনগরের জৈশ-ই-মুহাম্মদের কমান্ডার আবু বকরকে দিয়েছেন। এর আগে গত কয়েক বছরে শাবির শাহ ও তার আত্মীয়দের ২.২৫ কোটি টাকা দিয়েছেন। শাবির শাহ এবং জৈশ-ই মুহাম্মদের হয়ে আসলাম ওয়ানি কাজ করতেন বলেও পুলিশের দাবি।

জম্মু-কাশ্মিরের প্রভাবশালী নেতা শাবির শাহকে গত ২৫ জুলাই রাতে গ্রেফতার করে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট বা ইডি। তার বিরুদ্ধে এক দশকের পুরোনো একটি অর্থ পাচারের মামলা রয়েছে। বর্তমানে তিনি ইডি রিমান্ডে রয়েছেন।

গত ৩ আগস্ট তাকে দিল্লির এক আদালতে তোলার পর শাবির শাহ গণমাধ্যমকে বলেন, ইডি তার সঙ্গে অমানবিক আচরণ করছে এরফলে তার জীবন ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। তাকে জোর করে সাদা কাগজে সই করার জন্য চাপ দেয়া হচ্ছে। রাজনৈতিক প্রতিহংসার কারণে তাকে আদালতে টানাহেঁচড়া করা হচ্ছে বলেও তিনি অভিযোগ করেন।

এদিকে, অন্য এক ঘটনায় গতকাল (শনিবার) নিরাপত্তা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে লস্কর-ই তাইয়্যেবার তিন গেরিলা নিহত হওয়ার প্রতিবাদে আজ (রোববার) বারামুল্লা জেলায় হরতাল ধর্মঘট পালিত হচ্ছে। এর ফলে বারামুল্লা, সোপোর ও হাজিন একালায় সমস্ত দোকানপাট ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানসহ সড়কে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে।

প্রশাসনের পক্ষ থেকে উত্তর কাশ্মিরের বিভিন্ন এলাকায় মোবাইল ইন্টারনেটে বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে। বনধের ফলে যেকোনো প্রতিবাদ বিক্ষোভ মোকাবিলা করতে সংশ্লিষ্ট এলাকায় প্রচুর পরিমাণে নিরাপত্তা বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে।

পার্সটুডে