পুলিশ পরিচয়ে তুলে নেয়ার ১২ দিন পর কলেজ ছাত্রের লাশ উদ্ধার

sohanপুলিশ পরিচয়ে তুলে নেয়ার ১২ দিন পর চুয়াডাঙ্গা সদর উপজেলার খাড়াগোদা চন্নতলা মাঠ থেকে কলেজ ছাত্র সোহানুর রহমান সোহানের (১৮) বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।

বুধবার সকাল পৌণে ৯টায় তার লাশ উদ্ধার করা হয়। চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ওসি সাইফুল ইসলাম এ তথ্য জানান।

৭টার দিকে স্থানীয় লোকজন লাশটি পড়ে থাকতে দেখে থানায় খবর দিলে পুলিশ লাশটি উদ্ধার করে।

সোহান ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার ঈশ্বরবা গ্রামের মোহসিন আলীর ছেলে। তিনি কালীগঞ্জ শহীদ নূর হোসেন কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্র ছিলেন।

খবর পেয়ে তিতুদহ পুলিশ ক্যাম্পের সদস্যরা সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ঘটনাস্থলে পৌঁছান। চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ওসি সাইফুল ইসলামের উপস্থিতিতে লাশ উদ্ধার করা হয়।

এরআগে গত ১০ এপ্রিল তাকে পুলিশ পরিচয়ে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল বলে অভিযোগ করেছিলেন সোহানুরের মা।

ওই দিন সোহানুর রহমানের মা পারভীনা বেগম বলেছিলেন, তার ছেলে সোহান কোনো রাজনীতির সাথে জড়িত ছিল না। সে পড়ালেখা করে। এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৪ দশমিক ৩১ পেয়েছে। এরপর কালীগঞ্জ শহরের শহিদ নূর আলী কলেজে ভর্তি হয়েছে।

তিনি আরো বলেন, সোহানুর রহমানের বাবা ঢাকায় থাকেন। তার দুই ছেলে এক মেয়ে।

পুলিশ পরিচয় তুলে নেয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে চুয়াডাঙ্গা সদর থানার ওসি সাইফুল ইসলাম বলেন, পুলিশ পরিচয়ে তুলে নিতে পারে। তবে এটা পুলিশের কেউ করেনি। তার কোনো পূর্ব শত্রু পুলিশ পরিচয় দিয়ে ফায়দা তুলেছে।

তিনি আরো বলেন, ঘটনাটি আমরা গুরুত্বের সাথে তদন্ত করছি। অপরাধী যেই হোক তাকে ছাড় দেয়া হবে না।