এবার রোহিঙ্গা মুসলিমদের স্বাস্থ্যসেবায় ৪৪৩ কোটি টাকা সহায়তা দেয়ার ঘোষণা তুরস্কের | insaf24.com

এবার রোহিঙ্গা মুসলিমদের স্বাস্থ্যসেবায় ৪৪৩ কোটি টাকা সহায়তা দেয়ার ঘোষণা তুরস্কের

ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | আন্তর্জাতিক ডেস্ক 


মিয়ানমারের সেনাবাহিনী ও বৌদ্ধ সন্ত্রাসীদের নিপীড়ন ও নৃশংসতার শিকার হয়ে রাখাইন রাজ্য থেকে বাংলাদেশে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গা মুসলিমদের জন্য ৪৪৩ কোটি টাকা (১৯ কোটি ৬০ লাখ তুর্কি লিরা) দেবে তুরস্ক।

এক বিবৃতিতে তুরস্কের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

ওই মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, দুর্যোগ ও জরুরি ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের (এএফএডি) মাধ্যমে এ অর্থ পাঠানো হবে। রোহিঙ্গা নারী ও শিশুদের স্বাস্থ্যসেবায় এ অর্থ ব্যয় করা হবে।

প্রসঙ্গত, তুরস্ক এর আগেও রোহিঙ্গাদের জন্য সহায়তার ঘোষণা দিয়েছে। সেই সাথে ১ লাখ রোহিঙ্গা নাগরিকের জন্য আশ্রয়কেন্দ্র নির্মাণের ঘোষণাও দেয় তুরস্ক। এছাড়া দেশটির ফার্স্টলেডি এমিনি এরদোগান বাংলাদেশ সফর করে রোহিঙ্গাদের দুর্দশা দেখে গেছেন। তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোগানও রোহিঙ্গাদের ব্যাপারে বেশ তৎপর।


ইনসাফ সাংবাদিকতা কোর্স

ইনসাফ সাংবাদিকতা কোর্সদেশের প্রথম ইসলামী ঘরানার অনলাইন পত্রিকা ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকমের আয়োজনে শুরু হতে যাচ্ছে স্বল্পমেয়াদী সাংবাদিকতা কোর্স।অংশগ্রহণ করতে যোগাযোগ করুন এই নাম্বারে-০১৭১৯৫৬৪৬১৬এছাড়াও সরাসরি আসতে পারেন ইনসাফ কার্যালয়ে।ঠিকানা – ৬০/এ পুরানা পল্টন ঢাকা ১০০০।

Posted by insaf24.com on Monday, October 29, 2018


পবিত্র বাইতুল মুকাদ্দাসকে রক্ষা করা আমাদের দায়িত্ব: এরদোগান
জানুয়ারি ২১, ২০১৯
ইনসাফ টোয়েন্টিফোর ডটকম | মুসলিম বিশ্ব ডেস্ক


মুসলমানদের প্রথম ক্বিবলা পবিত্র বাইতুল মুকাদ্দাসের শহর আল কুদসকে রক্ষা করার বিষয়ে নিজের দৃঢ় অঙ্গীকারের কথা আবারো স্মরণ করিয়ে দিলেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট মুসলিম বিশ্বের প্রভাবশালী নেতা রজব তাইয়্যেব এরদোগান।

তিনি বলেন, পবিত্র মক্কা-মদিনাসহ ইসলামী সভ্যতার প্রতীক অন্যান্য নগরীগুলো আমাদের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ। মধ্য এশিয়া থেকে সুদানের সাওয়াকিন দ্বীপ পর্যন্ত-সর্বত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা পূর্বসূরিদের রেখে যাওয়া সম্পত্তিতে আমাদের ব্যাপক আগ্রহ রয়েছে। এজন্যই বাইতুল মুকাদ্দাসসহ পবিত্র শহরগুলো রক্ষা করা আমাদের দায়িত্ব। এজন্যই আমরা পবিত্র নগরী আল কুদসকে রক্ষা করতে দৃঢ় সংকল্পবদ্ধ।

ক্ষমতাসীন একে পার্টির এক অনুষ্ঠানে শনিবার (১৯ জানুয়ারি) তুরস্কের রাজধানী আঙ্কারায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

উল্লেখ্য, প্রেসিডেন্ট এরদোগান ২০১৭ সালে সুদান সফর করেন-এসময় তিনি লোহিতসাগরের পশ্চিম উপকূলীয় পূর্ব-সুদানের সাওয়াকিন দ্বীপে যান এবং এই ঐতিহাসিক দ্বীপটি পুনর্নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দেন।