লেকে গোসল করতে চাওয়ায় শিশুকে পুলিশের ‘শাস্তি’

শিশুকে পুলিশের শাস্তি (4)
ছবি : সৈকত মজুমদার

কি হয়েছে? এমন প্রশ্নের জবাবে পুলিশ সদস্য জানালেন ‘এ লেকে শিশুদের গোসল করা বন্ধ করতে আমরা ১৩ জন পুলিশ সদস্য এখানে কাজ করছি। কিন্তু শিশুরা কিছুতেই আমাদের কথা শুনতে চায় না। তাদের গোসল করা বন্ধ করতে মারই সবচেয়ে ভালো উপায়। তাই একজনকে ধরে শাস্তি দিয়েছি’।

চন্দ্রিমা উদ্যানের ক্রিসেন্ট লেক সংলগ্ন প্রাচীরের নিকট এক শিশুকে ফেলে এভাবেই মারছিলেন একজন পুলিশ সদস্য। আর বাকি সদস্যরা পাশে বসে দৃশ্যটি উপভোগ করছিলেন। ঘটনার সময় এই দৃশ্য ক্যামেরাবন্দী করেন সৈকত মজুমদার নামের একজন ফটোগ্রাফার। তিনি কৌশলে কিছু ছবি তোলার পরে পুলিশ সদস্যদের নিকট ঘটনা কি জানতে চাইলে এসব উত্তর দেন ওই পুলিশ সদস্য।

মঙ্গলবার বিকেলে ছবিগুলো সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে পোস্ট করার পর ভাইরাল হয়ে যায়। পুলিশ সদস্যদের দায়িত্ব পালনে প্রশ্ন তুলে এহেন কর্মকাণ্ডে ক্ষোভ প্রকাশ করছেন সাধারণেরা। শিশু নির্যাতনের অভিযোগে এইসব পুলিশ সদস্যদের শাস্তি চেয়েছেন অনেকেই। একজন ফেসবুক ইউজার মন্তব্য করেছেন, পুলিশ সদস্যরাই যদি এমন করে তাহলে আমাদের নিরাপত্তা কোথায়?

শিশুকে পুলিশের শাস্তি (2)
ছবি : সৈকত মজুমদার
শিশুকে পুলিশের শাস্তি (1)
ছবি : সৈকত মজুমদার